অশান্ত অশোকনগর, কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ, বোমাবাজি টিটাগড়ে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সকাল থেকেই উত্তপ্ত উত্তর ২৪ পরগনার একাধিক বিধানসভা কেন্দ্র। দফায় দফায় গুলি, বোমাবাজি চলছে টিটাগড়, অশোকনগর, আমডাঙা, গাইঘাটা, ব্যারাকপুরে। কোথাও মাথা ফাটছে তৃণমূল কর্মীর, কোথাও বিজেপির ক্যাম্প অফিস ভাঙচুর হচ্ছে। যুযুধান দুই পক্ষের সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নিয়েছে। টিটাগড়ের মিলনগড় আর অশোকনগরে দুপুরের পর থেকে তুমুল অশান্তি শুরু হয়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালানোর অভিযোগ তুলেছে শাসক দল, পায়ে গুলি লেগে জখম দুই তৃণমূল কর্মী।

অশোকনগর বিধানসভার ৭৯, ৭৯এ, ৮০, ৮০এ এই চারটি বুথে আজ ভোটগ্রহণ চলছিল। চার মধ্যে ট্যাংরা ৭৯ নম্বর বুথের বাইরে চরম অশান্তি শুরু হয়েছে। স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, দলের কর্মীদের লক্ষ্য করে পায়ে গুলি চালিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। গুরুতর জখম দু’জন। মনিরুল মণ্ডল নামে এক তৃণমূল কর্মীর পায়ে গুলি বিঁধেছিল। তাঁকে বারাসাত জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অশোকনগরের তৃণমূল প্রার্থী নারায়ণ গোস্বামীর অভিযোগ, দুই তৃণমূল কর্মীকে পায়ে গুলি করেছে সিআরপিএফ।

ঘটনাকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ট্যাংরা এলাকা। স্থানীয়রা বলছেন, মুড়িমুড়কির মতো বোম পড়ছে। তৃণমূল-বিজেপি কর্মীদের মধ্যে লাঠালাঠি চলছে। কয়েক রাউন্ড গুলিও ছোড়া হয়েছে। বিজেপির দাবি, তাদের কর্মী-সমর্থকদের লক্ষ্য করে গুলি-বোমা ছোড়া হচ্ছিল। ঝামেলার সূত্রপাত সেখান থেকেই।

স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা অভিযোগ করেছেন, এদিন বেলা ১১টা নাগাদ ট্যাংরা আদর্শ শিক্ষা নিকেতনের বুথে ভোটের কাজ দেখতে ঢোকেন বিজেপি প্রার্থী তনুজা চক্রবর্তী। বুথে তাঁকে ঢুকতেই দেখেই বোমাবাজি শুরু করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ, ওই বুথ লক্ষ্য করে বোমা ছোড়া হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে কেন্দ্রীয় বাহিনী পৌঁছলে তাদের গাড়ি লক্ষ্য করেও পর পর বোম ছোড়ে দুষ্কৃতীরা। জওয়ানরা পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। তারপরেই গুলি চলে। কিন্তু কে বা কারা গুলি চালিয়েছে সে বিষয়ে কোনও নিশ্চিত তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি।

অশোকনগরের বিজেপি প্রার্থী তনুজা চক্রবর্তীর বক্তব্য, তাঁকে উদ্দেশ্য করেই এই হামলা চালানো হয়েছে। পুরোটাই তৃণমূলের পরিকল্পিত। তৃণমূল কর্মীরা যে গুলি চলার কথা বলছেন তাও মিথ্যা। গুলি চালনার ঘটনায় রিপোর্ট চেয়ে পাঠিয়েছিল নির্মাচন কমিশন। সেই রিপোর্ট পেয়ে কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, কেন্দ্রীয় বাহিনী গুলি চালায়নি।

অন্যদিকে, টিটাগড়েও দফায় দফায় বোমোবাজি চলছে। বিজেপির ক্যাম্প অফিস ভাঙচুর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। সংঘর্ষে আহত হয়েছে তিন বিজেপি কর্মী। গেরুয়া শিবিরের দাবি, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা এলাকায় আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করছে। ভোটদানে বাধা দিচ্ছে। যদিও এ ব্যাপারে শাসক দলের কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পাওয়া যায়নি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More