হু ছাড়া মহামারী আর কেউ ঠেকাতে পারবে না, আমেরিকার সিদ্ধান্তের কড়া নিন্দায় বিল গেটস

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এক ভয়ানক বিপর্যয়ের মুখে বিশ্ব। ভাইরাসের মহামারী ঠেকাতে গেলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু) সাহায্য সবচেয়ে বেশি দরকার। সঙ্কটের এই সময় হু-এর কোনও বিকল্পের কথা ভাবাই যায় না, মার্কিন প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের তীব্র সমালোচনা করে বললেন মাইক্রোসফট কর্তা বিল গেটস।

চিনের পক্ষপাতিত্ব করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, এমন অভিযোগ আগেই তুলেছিল আমেরিকা। সেই সঙ্গে হুঁশিয়ারিও দেওয়া হয়েছিল যে চিনের সঙ্গ দেওয়া বন্ধ না করলে হু-কে আর্থিক সাহায্য বন্ধ করে দিতে পারে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। হলও সেটাই। মঙ্গলবারই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করে দেন, হু-কে অর্থ সাহায্য দেওয়া পুরোপুরি বন্ধ করল আমেরিকা। এই ঘোষণার ট্রাম্পের কড়া সমালোচনা করেন রাষ্ট্রপুঞ্জের মহাসচিব আন্তেনিও গুয়াতেরস। এবার মার্কিন সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেন বিল গেটসও।

এদিন টুইট করে মাইক্রোসফট কর্তা বলেন, “বিশ্বজোড়া মহামারীর এই কঠিন পরিস্থিতিতে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে আর্থিক সাহায্য দেওয়া বন্ধ করে বিপদ আরও বাড়িয়ে দেওয়া হল। হু-এর গবেষণা ও গাইডলাইনেই ধীরে ধীরে সংক্রমণ কমতে শুরু করেছিল। এমন ভয়ঙ্কর সিদ্ধান্তের কারণে যদি হু-এর কাজকর্ম বন্ধ হতে বসে তাহলে কিন্তু বিশ্বের আর কোনও সংস্থার পক্ষেই সেই কাজ করা সম্ভব নয়।”

চিন প্রথম ভাইরাসের সংক্রমণের কথা প্রকাশ্যে আনার পর থেকে অর্থাৎ গত বছর ডিসেম্বর থেকে আজ অবধি বিশ্বে সংক্রামিতের সংখ্যা ২০ লাখ ছাড়িয়েছে। মৃত্যু হয়েছে এক লক্ষের বেশি মানুষের। যার মধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থা রীতিমতো উদ্বেগজনক। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ছুঁয়েছে, মৃত ২৬ হাজারের বেশি। মার্কিন প্রেসিডেন্টের অভিযোগ ছিল, চিনা ভাইরাস ছড়িয়েছে গোটা বিশ্বে, এ ব্যাপারে সব জানলেও হু নাকি শুরু থেকে কোনও ব্যবস্থাই নেই। এমনকি চিনের উপর ভরসা রেখে নাকি ভুল তথ্য দিয়েছে হু, যার কারণেই ভাইরাসের সংক্রমণ অতিমহামারীর পর্যায়ে পৌঁছেছে।  চিনের সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ করে দিলে এই ভাইরাস অনেক কম ছড়াত বলেও দাবি করেন ট্রাম্প।

আমেরিকার অভিযোগের পাল্টা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (হু)ডিরেক্টর জেনারেল টেড্রস অ্যাডহানম ঘেব্রেইসাস বলেছিলেন, সংক্রমণ যদি রুখতে হয়, মৃত্যুমিছিল যদি থামাতে হয়, তাহলে পারস্পরিক দ্বন্দ্ব, দোষারোপ নয়, এক হয়ে লড়াই করতে হবে বিশ্বের সকল দেশকে। জেনেভা একটি সাংবাদিক সম্মেলনে টেড্রস বলেছিলেন, ভাইরাস নিয়ে কাদা ছোড়াছোড়ি না করে বেজিংয়ের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে কাজ করুক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ভয়ঙ্কর এই শত্রুকে থামাতে হলে একজোট হওয়া সবচেয়ে আগে দরকার। এখন সব রাজনৈতিক দল, রাষ্ট্রনেতাদের প্রাথমিক দায়িত্ব হল তাদের নাগরিকদের বাঁচানো। ভাইরাস নিয়ে রাজনীতি বন্ধ করুক আমেরিকা।

চিকিৎসা ও গবেষণার জন্য গত বছরে ‘হু’-কে দেওয়া মার্কিন অর্থ সাহায্যের পরিমাণ ছিল ৪০ কোটি ডলার। সঙ্কটের এই সময় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে অর্থ সাহায্য বন্ধ করে দেওয়ার মার্কিন সিদ্ধান্তের সমালোচনায় সরব হয়েছেন অনেকেই। বিল গেটস নিজেও বলেছেন, মহামারীকে যদি কেউ থামাতে পারে সেটা একমাত্র হু-ই পারবে, আর কারও পক্ষে সেটা সম্ভব নয়। এই সিদ্ধান্ত হু-এর ক্ষমতাকে অনেক কমিয়ে দেবে, যা গোটা বিশ্বের কাছেই চরম উদ্বেগের বিষয়।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More