রবিবার, ফেব্রুয়ারি ১৭

ঘরের আলো জ্বালানো নিয়ে ঝগড়া, ভারতীয় রুমমেটকে কুপিয়ে খুন করল পাকিস্তানি যুবক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতীয় রুমমেটকে খুন করেছিল আর এক পাকিস্তানি রুমমেট। আর সেই অভিযোগেই পাকিস্তানি যুবককে সাত বছরের জেল হেফাজতের সাজা শুনিয়েছে দুবাইয়ের আদালত। কিন্তু কী এমন হয়েছিল যে রুমমেটকে খুনই করে দিল আর এক রুমমেট?

পুলিশ জানিয়েছে, ঘরের আলো জ্বালানো নিয়ে ঝগড়া লেগেছিল দু’জন রুমমেটের মধ্যে। আর এই সামান্য কারণেই নিজের ভারতীয় রুমমেটকে কুপিয়ে খুন করেছিলেন ৩৭ বছরের ওই পাকিস্তানি যুবক। কাজের সূত্রেই দুবাই গিয়েছিলেন দুই দেশের দুই যুবক। থাকতেন দুবাইয়ের দক্ষিণ প্রান্তের জাবেল আলি’র শ্রমিকদের কোয়ার্টারে। ২০১৮ সালের ১ অক্টোবর ঘটে এই দুর্ঘটনা। প্রত্যক্ষদর্শীরা পুলিশকে জানিয়েছে, ঘটনার দিন মদ্যপ অবস্থায় ঘরে এসেছিলেন ওই পাকিস্তানি যুবক। আচমকাই ঘরের আলো জ্বালানো নিয়ে শুরু হয় ঝগড়া।

কোয়ার্টারের সুপারভাইজার জানিয়েছেন, ঘটনার দিন ঘরে গিয়েই লাইট জ্বালিয়ে দেন ওই পাকিস্তানি যুবক। জোরে জোরে ফোনে কথা বলতেও শুরু করেন। সে সময় ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন ওই ভারতীয় যুবক। স্বভাবতই বিরক্ত হন তিনি। এরপরেই শুরু হয় ঝগড়া। ঘটনাস্থলে হাজির বাকি শ্রমিকরা জানিয়েছেন, প্রথমে ভারতীয় যুবকই উস্কে দেন ওই পাকিস্তানি যুবককে। এমনকী তিনি ‘রেসিডেন্ট ভিসা’ নিয়ে আসেননি বলেও কটাক্ষ শুনতে হয়। ঘর ছেড়ে তাঁকে চলে যেতেও বলেন ভারতীয় যুবক। এমনকী বাকিদের দিয়ে মার খাওয়ানোর হুমকিও দেন।

আর এতেই শুরু হয় সমস্যা। আর মেজাজ ঠিক রাখতে পারেননি ওই পাকিস্তানি যুবক। ছুরি নিয়ে সটান ঝাঁপিয়ে পড়েন রুমমেটের উপর। নিমেষেই কুপিয়ে শেষ করে দেন তাঁকে। ফরেন্সিক রিপোর্টে জানা গিয়েছে, বুকে গভীর ক্ষত এবং অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের জন্যই মৃত্যু হয়েছে ওই ভারতীয় যুবকের।

ঘটনার দিন অভিযুক্ত মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন বলে জানিয়েছে পুলিশ। পরবর্তী সময় নিজের দোষ স্বীকার করে নেন ওই পাকিস্তানি যুবক। পুলিশের কাছে জানান, রুমমেটকে মেরে ফেলার কোনও উদ্দেশ্য তাঁর ছিল না। রাগের মাথাতেই এ হেন কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন তিনি।

Shares

Comments are closed.