রকেট-হামলায় গুঁড়িয়ে গেল হাসপাতাল, নিহত অন্তত ১৮! যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ায় ফের বিপর্যয়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সিরিয়ার আফরিন শহরের একটি হাসপাতালে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় প্রাণ হারালেন অন্তত ১৮ জন! ৩০ জনেরও বেশি আহত এ পর্যন্ত। নিহতদের মধ্যে দুজন স্বাস্থ্যকর্মীও আছেন বলে জানা গেছে। বাকিরা ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন অসুস্থতার কারণে।

২০১৮ সালে এই আফরিন শহরের দখল নিয়েছিল তুরস্ক ও সিরিয়ার এক বিদ্রোহী গোষ্ঠী। সেই সময়ে সেখানকার অসংখ্য কুর্দিশ বাসিন্দাদের এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য করা হয়। মনে করা হচ্ছে, তারই শোধ নিতে এই ঘৃণ্য হামলা ঘটিয়েছে সিরিয়ার বিদ্রোহী গোষ্ঠী কুর্দিশের নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস।

18 killed, 23 injured in shelling in Syria's rebel-held Afrin: Report |  World News - Hindustan Times

আফরিনের এই আশ শিফা নামের হাসপাতালটি উত্তর সিরিয়ার অন্যতম বড় হাসপাতাল। হাজার হাজার রোগীর চিকিৎসা চলে সেখানে। এই হাসপাতালে এত বড় হামলায় আতঙ্কের পারদ তুঙ্গে।

হামলার পরেই  হাসপাতালটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। রোগীদেরও সরানো হয়েছে অন্যত্র। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, হাসপাতাল ও সংলগ্ন এলাকা কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। যে এলাকা থেকে হাসপাতালের দিকে রকেট ও শেল ছোড়া হয়েছে, সেখানে সিরিয়ার বিদ্রোহী গোষ্ঠী কুর্দিশের নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস মোতায়েন ছি‌ল। যদিও সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্সেস বিবৃতি দিয়ে দাবি করেছে তারা এই হামলা চালায়নি।

Syria.. 16 killed, including women, in bombing of a hospital in Afrin -  Around World journal

তবে এমন হামলা সিরিয়ায় নতুন নয়। ২০১১ সাল থেকে গৃহযুদ্ধ চলছে সিরিয়ায়। সরকারের সঙ্গে বিদ্রোহীদের সংঘর্ষে প্রায় ৪ লক্ষ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন গত এক দশকে। হামলায় ঘরবাড়ি হারানো সাধারণ মানুষ বিভিন্ন শরণার্থী শিবিরে আশ্রয় নিতে বাধ্য হয়েছেন। তার মধ্যেই চলেছে ছোটবড় নানা হামলা।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More