ডায়মন্ড হারবারের ৫ টাকার পাঠশালায় শিক্ষার আলোয় উজ্জ্বল ‘অন্ধকারের শিশুরা’

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শত শত রঙিন মুখ। জীবনের উচ্ছ্বাসে ভরপুর। তবু আর পাঁচটা শিশুর মত স্বাভাবিক জীবন ছন্দের অধিকারী নয় ওরা। ওদের জন্ম আড়াল করে রাখে সমাজ। ছায়ায় ঢাকা পড়ে থাকে এই শিশুদের ভবিষ্যৎ। অপরাধ একটাই, ওরা যৌনকর্মীদের সন্তান।

স্যাঁতস্যাঁতে ভাঙা ঘরে সামাজিক সুযোগ সুবিধের আলো এসে পৌঁছয় না। করোনার আবহে স্কুলও বন্ধ। তাই বলে কি শিক্ষার আলো থেকেও বঞ্চিত থাকবে এই শিশুরা? না, তা হয় না। ওদের কথা ভেবেই চালু হয়েছে পাঁচ টাকার পাঠশালা। যেখানে মাত্র পাঁচ টাকার বিনিময়ে দুবেলা নিয়ম করে শিক্ষা দেওয়া হবে যৌনপল্লীর শিশুদের।

ডায়মন্ড হারবারের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা পরিচয় ফাউন্ডেশনের উদ্যোগেই পাখা মেলে এভাবেই উড়ছে রঙিন প্রজাপতির মতো শিশুর দল। ঘরের কোণে এতকাল আটকে পড়া মুখগুলোয় এখন আর বিষাদের লেশমাত্র নেই। ওদের হাতের ছোঁয়ায়, মনের রং মিশে প্রাণ পাচ্ছে শত শত রঙিন ছবি।

৫ টাকার আহার তো শুনেছেন। কিন্তু ৫ টাকার পাঠশালা? না, এর আগে কখনও ভাবা হয়নি বলেই মনে হয়। কী শেখানো হয় এই পাঠশালায়? স্বেচ্ছাসেবী সদস্যরা জানালেন, কবিতা, গান, নাচ থেকে শুরু করে ইতিহাস, ভূগোল, বাংলা, বিজ্ঞান এমনকী কম্পিউটার সবকিছুরই পঠনপাঠন চলে এই পাঠশালায়।

লকডাউনে অধিকাংশ স্কুল যখন বন্ধ হতে বসেছে, বাড়ছে স্কুলছুটের সংখ্যা ঠিক তখনই ডায়মন্ড হারবারের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা পরিচয় ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে চালু হল পাঁচ টাকার পাঠশালা। তবে, আপাতত ডায়মন্ডহারবারের যৌনপল্লীর শিশুদের জন্যই খোলা হল এই পাঠশালা। পরিচয় ফাউন্ডেশনের সদস্যদের আশা, ভবিষ্যতে সমস্ত এলাকার যৌনপল্লীতেই শিক্ষার আলো পৌঁছে দিতে পারবেন তাঁরা।

পাঠশালা এখন দিনরাত শিশুদের উচ্ছ্বাসে মুখর। পাতার পর পাতা এঁকে চলেছে শিশুর দল।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.