ছবি পাচ্ছিলেন না, বাধ্য হয়ে ২০০০-এ  কেবিসির হোস্ট! কান্নায় ভেঙে পড়লেন অমিতাভ

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পুরানো চাল ভাতে বাড়ে, প্রবাদকে সত্যি করে মধ্য সত্তরেও চালিয়ে যাচ্ছেন, কাজে খামতি নেই অমিতাভ বচ্চনের(amitabh bachchan)। এখনও হাতে বেশ কয়েকটি ছবি। গুডবাই, ব্রহ্মাস্ত্র, রানওয়ে ৩৪, ঝুন্ড, হলিউডের হিট ছবি দি ইনটার্নের হিন্দি রিমেক। কিন্তু এই অমিতাভকেই দুদশক আগে কাজ পাওয়ার জন্য হাপিত্যেশ করতে হয়েছিল! কেউ ডাকত না। কৌন বনেগা ক্রোড়পতির (kbc) ১০০০ এপিসোড (episode) হয়ে গেল। সেখানে গেস্ট হয়ে আসা মেয়ে শ্বেতা, নাতনি নভ্য নাভেলি নন্দার সামনেই পুরানো সেই দিনের স্মৃতিরা (memories) ভিড় করছিল বিগ বির মনে। সেখানেই জানালেন, কাজ জুটছিল (no work) না বলেই ২০০০ সালে ক্যুইজ শো (quiz show)সঞ্চালনায় (host)নেমেছিলেন তিনি।

শ্বেতার প্রশ্নের উত্তরে অমিতাভ বলেন, ২১টা বছর হয়ে গেল। শো শুরু হয় ২০০০-এ। সেই সময়  কোনও ধারণাই ছিল না আমার। অনেকে সাবধান করেছিল, বড় পর্দা থেকে ছোট পর্দায় সরে গেলে আমার সেই ইমেজ আর থাকবে  না! কিন্তু তখন আমার অবস্থা ভাল ছিল না। কোনও ছবিতেই কাজের সুযোগ আসছিল না। কিন্তু ওই শোয়ের প্রিমিয়ার হওয়ার পর যে ধরনের প্রতিক্রিয়া আসছিল, তাতে বিশ্বাস করতে বাধ্য হই যে, আমার পৃথিবীটা বদলে গিয়েছে।

সুপারস্টার আরও বলেন, সবচেয়ে ভাল দিক হল, প্রতিদিন প্রতিটি প্রতিযোগীর কাছে কিছু না কিছু শিখেছি। অডিয়েন্স, শ্বেতা, নভ্য সকলেই অমিতাভের বক্তব্যকে হাততালি দিয়ে স্বাগত জানান। তারপর ২০০০ থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত গেম শোয়ের গোটা জার্নির ঝলক দেখানো হয়। ভিডিওটা শেষের পর দেখা যায়, অমিতাভ আবেগবিহ্বল হয়ে পড়েছেন। চোখের কোণটা জলে চিকচিক করছে। কাঁদছেন বিগ বি। তারপর নিজেই চোখের জল মুছতে দেখা যায় তাঁকে।

কেবিসি দিয়েই তাঁর ছোটপর্দায় জয়যাত্রা শুরু। বর্তমানে এই শোয়ের ত্রয়োদশ সিজন চলছে। শুরুর পর থেকে তৃতীয় সিজন বাদে বাকি সব পর্বের হোস্ট অমিতাভ। তৃতীয় শোয়ের সঞ্চালনা করেছিলেন শাহরুখ খান।  প্রথম থেকে ষষ্ঠ সিজন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি প্রাইজ মানি ছিল ১ কোটি টাকা। তবে ২০১৩য় সপ্তম সিজন থেকে তা বেড়ে হয় সাত কোটি টাকা।

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.