দিলীপের বাংলায় আবার ভুল! বর্ণপরিচয়টা লাগবেই, টিপ্পনি বাবুলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোমবারের বৃষ্টিভেজা সন্ধ্যায় বাংলার রাজনীতিতে ঘটনার ঘনঘটা। বাংলা বিজেপিতে (BJP) বড়সড় বদবদল হয়ে গেছে সোমবাই সন্ধ্যায়। রাজ্য সভাপতির পদ থেকে দিলীপ ঘোষকে (Dilip Ghosh) সরিয়ে দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহরা। তাঁকে বিজেপির কেন্দ্রীয় ভাইস প্রেসিডেন্ট করা হয়েছে। বাংলা বিজেপির নতুন রাজ্য সভাপতি এখন বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদার।

কে এই সুকান্ত মজুমদার, কেন তাঁকে বাংলা বিজেপির সভাপতি করলেন মোদী-শাহ

বিজেপির শীর্ষ স্তরে এই রদবদল হতে না হতেই তা নিয়ে মুখ খুলেছেন সদ্য পদ্ম শিবির ত্যাগ করা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। আবারও দিলীপ ঘোষকে বাংলা ভাষা নিয়ে খোঁচা দিয়েছেন তিনি।

এদিন রাজ্য সভাপতির পদ থেকে সরে যাওয়ার পর দিলীপ ঘোষ টুইট করে তাঁর উত্তরসূরীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। আর তা করতে গিয়েই বাংলা লেখায় খানিক গোলমাল করে ফেলেছিলেন তিনি। পরে অবশ্য তা শুধরেও নিয়েছেন তড়িঘড়ি। কিন্তু সেই ভুল চোখ এড়ায়নি বাবুলের।

কী লিখেছিলেন দিলীপ? বাবুল সুপ্রিয় স্ক্রিনশট পোস্ট করে দেখিয়েছেন, দিলীপ লিখেছিলেন, “ভারতীয় নতুন রাজ্য সভাপতি হিসেবে ডঃ সুকান্ত মজুমদারকে অভিনন্দন জানাই…” বাংলা বাক্য গঠনে এই ভুল দেখিয়ে বাবুল দিলীপ ঘোষকে আবারও বর্ণপরিচয় দেওয়ার বাসনা প্রকাশ করেছেন টুইটারে।

তৃণমূল শিবিরের নতুন সদস্য লিখেছেন, বিগত কয়েক বছরে বিজেপির জন্য অনেক খেটেছেন দিলীপ ঘোষ। তাই ওঁর আগামী জীবন সুখের হোক এই কামনাই করি। কিন্তু এটা বলতেই হচ্ছে যে আমার বর্ণপরিচয়টা কিন্তু ওঁর লাগবে। “ভারতীয় নতুন রাজ্য সভাপতি…” মানে কি??? আবার ভুল বাংলা!!

পরে অবশ্য ভুল শুধরে নিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। “ভারতীয় নতুন রাজ্য সভাপতি”-র জায়গায় এখন লিখেছেন “ভারতীয় জনতা পার্টির নতুন রাজ্য সভাপতি…”। কিন্তু ততক্ষণে যা হওয়ার হয়ে গেছে। আরও একবার নেট মাধ্যমে বিদায়ী সভাপতি ঠাট্টার সম্মুখীন হচ্ছেন।

এর আগে দিলীপ ঘোষের হাতে ধরে থাকা এক পোস্টারে কন্যাশ্রী বানান ভুল ছিল। তা নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। তখনও অনেকে বর্ণপরিচয় উপহার দিতে চেয়েছিলেন দিলীপ ঘোষকে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More