পাসপোর্টে ‘ইজরায়েল বাদে’ শব্দবন্ধ সরাল, ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বহাল, জানাল বাংলাদেশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সাম্প্রতিক ইজরায়েল-প্যালেস্তাইন চরম সংঘাতের প্রেক্ষাপটে ইজরায়েল যাত্রা সম্পর্কে পাসপোর্টে বদল ঘটাল বাংলাদেশ। এতদিন বাংলাদেশের পাসপোর্টে শর্ত হিসাবে উল্লেখ করা থাকত যে, একমাত্র ইজরায়েল বাদে বিশ্বের বাকি সব দেশের ক্ষেত্রে এই পাসপোর্ট বৈধ। শনিবার ঢাকা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এবার পাসপোর্টে ইজরায়েল বাদে শব্দবন্ধটি প্রত্যাহার করা হচ্ছে। যদিও ইজরায়েল যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা আগের মতোই বহাল থাকছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ।
ইজরায়েল-প্যালেস্তাইন সংঘর্ষে গাজা খাড়িতে বহু প্যালেস্তীনীয় নাগরিক মারা যাওয়ার ১১ দিন বাদে মিশরের উদ্যোগে শান্তিচুক্তি করে দুপক্ষ। তার মধ্যেই বাংলাদেশের এই সিদ্ধান্ত।
ইজরায়েল শেখ হাসিনা সরকারের পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়ে বলেছে, এবার দুদেশের জনগণের স্বার্থে কূটনৈতিক সম্পর্ক গড়ে উঠুক। ইজরায়েলের বৈদেশিক বিষয় সংক্রান্ত ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল গিলাড কোহেন ট্যুইট করেছেন, দারুণ খবর! বাংলাদেশ সরকার ইজরায়েল সফরে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে। এই পদক্ষেপ স্বাগত। আমি বাংলাদেশ সরকারকে আরও এগিয়ে ইজরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করতে বলছি যাতে আমাদের দুটি দেশের মানুষ লাভবান হন।
আট দশকের পুরানো ইজরায়েল- প্যালেস্তাইন বিরোধে বাংলাদেশে বরাবরই প্যালেস্তিনীয়দের দাবি সমর্থন করেছে, ইজরায়েলের অস্তিত্বকেই স্বীকৃতি দেয়নি। তাই তাদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক কূটনৈতিক সম্পর্কই নেই।
ফলে বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্তে প্রশ্ন উঠছে, হাসিনা কি অবস্থান বদল করছেন। বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল জানিয়েছেন, তাঁরা আন্তর্জাতিক মানদন্ড পূরণ করতেই পাসপোর্টে বদল আনছেন। তার মানে এই নয়, ইজরায়েল সম্পর্কে ঘোষিত মনোভাব পাল্টাচ্ছে। বিদেশমন্ত্রী ডঃ এ কে আবদুল মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, ৬ মাস আগে ই পাসপোর্ট চালুর সময়ই আমরা< পাসপোর্ট থেকে কথাটা কেটে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিই। আমাদের পাসপোর্টকে আন্তর্জাতিক মাপকাঠির সঙ্গে মানানসই করতেই এই পদক্ষেপ। কিন্তু ইজরায়েলের প্রতি আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি একই থাকছে। আমরা ইজরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক তৈরি করছি না। প্যালেস্তিনীয়দের সংগ্রাম সমর্থন করি আমরা। দুই রাষ্ট্রের তত্ত্বকেও সমর্থন জানাই। আমাদের বিদেশনীতি বদলাচ্ছে না। বাংলাদেশের বিদেশমন্ত্রক ট্যুইট করে, নতুন ই-পাসপোর্ট চালু হলেও যাত্রায় নিষেধাজ্ঞা সহ ইজরায়েল নিয়ে অবস্থান বদলায়নি বাংলাদেশ। প্যালেস্তিনীয়দের ওপর নির্যাতনের নিন্দা করে বাংলাদেশ।
ইজরায়েল অবশ্য সংযুক্ত আরব আমিরশাহি, বাহারিন, মরক্কো, সুদানের মতো মুসলিম সংখ্যাগুরু দেশগুলির সঙ্গে ২০২০র সেপ্টেম্বর ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পর্ক স্বাভাবিক করেছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More