‘পুরোপুরি হারাম!’ ফেসবুকে ‘হাহা’ ইমোজির বিরুদ্ধে ফতোয়া বাংলাদেশের মৌলবির

দ্য ওয়াল ব্যুরো:  ফেসবুকের ‘হাহা’ ইমোজি নাপসন্দ বাংলাদেশের এক মৌলবির। আহমাদুল্লাহ নামে পড়শী দেশের ওই ব্যাপক পরিচিত মৌলবি মনে করেন, ইসলাম ‘হাহা’ ইমোজি ব্যবহার করে অন্যকে ঠাট্টা-বিদ্রুপ করা অনুমোদন করে না, তা মুসলিমদের কাছে পুরোপুরি হারাম। তিনি ওই হাসি-ঠাট্টার ইমোজির বিরুদ্ধে ফতোয়া জারি করেছেন। বাংলাদেশে তাঁর তিন লাখের কাছাকাছি ফলোয়ার ফেসবুক, ইউটিউবে। সোস্যাল মিডিয়ায় খুব সক্রিয় তিনি। সেদেশের টেলিভিশন শোয়ে তিনি নিয়মিত ধর্মীয় ইস্যু নিয়ে আলোচনা করেন।

আমজনতার সেতু বন্ধনকারী মঞ্চ হিসাবে ফেসবুকে একসময় শুধু ‘লাইক’, ‘কমেন্ট’ সেকশনই ছিল, যেখানে মানুষ তার প্রতিক্রিয়া জানাতে পারত। এখন সেখানে বিভিন্ন মানসিক প্রতিক্রিয়া, যেমন রাগ, দুঃখ, আনন্দ, ক্রোধ, স্নেহ-ভালবাসা প্রকাশের নানা ধরনের ইমোজির ব্যবহার হয়। এটাই আজকের ইন্টারনেট কালচার। চোখ দুটো প্রায় বন্ধ, মুখে হাসির ছবি দেওয়া ‘হাহা’ ইমোজি চলে কাউকে নিয়ে ঠাট্টা, ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করতে। এটা সবাই হাল্কা মেজাজেই নেন। কিন্তু ব্যতিক্রম আহমাদুল্লাহ। তিন মিনিটের এক ভিডিওতে তিনি বলেছেন, আজকাল অন্যকে ঠাট্টা-উপহাস করতে আমরা ফেসবুকে ‘হাহা’ ইমোজি ব্যবহার করি। যদি এর উদ্দেশ্য হয় নির্মল আনন্দ, স্রেফ মজা করা,  যাঁকে উদ্দেশ্য করে হাহা, তিনিও মজা পেলে আপত্তির কিছু নেই, কিন্তু যদি এর  পিছনে কাউকে ছোট করা, অপমান করা, ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ, তামাসা করার মানসিকতা থাকে,  তবে ইসলামে তা একেবারে নিষিদ্ধ। পবিত্র কোরানে বলা আছে, কেউ যেন অন্যকে  নিয়ে ঠাট্টা-তামাসা, বিদ্রুপ, উপহাস না করেন।

ভিডিওটি ২০ লাখের বেশি লোক দেখেছেন। আহমাদুল্লাহ বলেছেন, আল্লাহর নামে বলছি, এমন আচরণ থেকে বিরত থাকুন। কাউকে উপহাস করতে হাহা ইমোজি দেবেন না। আপনি কোনও মুসলিমকে আঘাত করতে তিনিও পাল্টা খারাপ ভাষা বলতে পারেন, যা কাঙ্খিত নয়।

যদিও ধর্মগুরুর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বহু মানুষ সেই হাহা ইমোজিই দিয়েছেন। আজকের সময়ে সব ধর্মের গুরুরাই ভক্তদের সঙ্গে সোস্যাল মিডিয়ায় যোগাযোগ রাখেন, ভিডিওতে তাদের নানা প্রশ্নের উত্তর দেন। কেউ নির্জলা ধর্মতত্ত্ব আলোচনা করেন, কেউ বা  অস্বাভাবিক, বিতর্কিত দাবি করে বাজার গরম করেন। কারও বিরুদ্ধে জাকির নায়েকের মতো ধর্মীয় প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে।

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More