উত্তরবঙ্গের মুখ হিসেবেই সুকান্ত সভাপতি, দু’মাসে তিন পুরস্কার দিল্লির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত জুলাই মাসে নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে উত্তরবঙ্গ থেকে দুই সাংসদকে ক্যাবিনেটে নেওয়া হয়েছিল। তাঁরা হলেন, আলিপুরদুয়ারের সাংসদ জন বার্লা এবং কোচবিহারের সাংসদ নিশীথ প্রামাণিক। বাংলার সংগঠনের হাল ধরার ক্ষেত্রেও সেই উত্তরবঙ্গের উপরেই ভরসা রাখলেন অমিত শাহরা (BJP)। দিলীপ ঘোষকে (Dilip Ghosh) সরিয়ে আনা হল বালুরঘাটের সাংসদ সুকান্ত মজুমদারকে (Sukanta Majumdar)।

দিলীপের বাংলায় আবার ভুল! বর্ণপরিচয়টা লাগবেই, টিপ্পনি বাবুলের

পর্যবেক্ষকদের মতে বিজেপি এটা কৌশলেই করল। কেন? তাঁদের মতে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির গণভিত্তি দক্ষিণের চেয়ে উত্তরে অনেক ভাল। তাছাড়া সুকান্ত নিজে একজন অধ্যাপক। নম্র এবং পরিচ্ছন্ন নেতা হিসেবে তাঁর একটা গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। সেই কারণেই তাঁকে রাজ্য সভাপতি পদে আনল দিল্লির নেতৃত্ব।

গত লোকসভা ভোটে গোটা উত্তরবঙ্গ এবং জঙ্গলমহলে তৃণমূলের পায়ের তলার মাটি সরিয়ে দিয়েছিল গেরুয়া শিবির। কোচবিহার থেকে মালদহ পর্যন্ত লোকসভায় একটা আসনও জেতেনি তৃণমূল। কংগ্রেসের জেতা মালদহ দক্ষিণ বাদ দিলে উত্তরবঙ্গের সব আসনে পদ্মফুল ফুটেছিল। জঙ্গলমহলে বিজেপির সাফল্য ছিল ১০০ শতাংশ। কিন্তু একুশের বিধনসভা ভোটে দেখা গিয়েছে যে পশ্চিমাঞ্চলে বিজেপি যে সাফল্য পেয়েছিল তা ধরে রাখতে পারেনি। বরং উত্তরবঙ্গে গণভিত্তি ভোট সবটাই অটুট রাখতে পেরেছে বিজেপি। সুকান্তকে রাজ্য সভাপতি করার সেটাও একটা কারণ হতে পারে।

উত্তরবঙ্গের বেশিরভাগ জেলা বাংলাদেশের সীমান্ত লাগোয়া। বেশিরভাগ জেলাতেই উদ্বাস্তু মানুষজনের বসবাস। বিজেপি মনে করে সেখানে তাদের উর্বর মাটি। বিধানসভা ভোট হয়ে যাওয়ার পর জন বার্লার পৃথক রাজ্যের দাবি, তাতে নিশীথ প্রামাণিকের সমর্থন ইত্যাদি দেখে অনেকেই মনে করছিলেন বিজেপি উত্তরবঙ্গের মানুষের ভাবাবেগকে উস্কে দিতে চাইছে। কারণ উত্তরবঙ্গে বহু জাতি জনজাতির বাস। রাজবংশি, রাভা খামতাপুরি-সহ পৃথক পৃথক জনজাতির পৃথক পৃথক ভাবাবেগ রয়েছে, দাবি রয়েছে। পর্যবেক্ষকদের মতে সুকান্ত মজুমদারকে রাজ্য সভাপতি করে বিজেপি আসলে বার্তা দিতে চাইল উত্তরবঙ্গের মানুষকেই।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More