প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির দুর্নীতি নিয়ে আলোচনা করছেন তাঁরই দলের দুই নেতা, শোনা গেল মাইকে

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত মাসেই এক সভায় প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ডি কে শিবকুমারের ‘দুর্নীতি’ (Corruption) নিয়ে আলোচনা করছিলেন দুই কংগ্রেস নেতা। তাঁদের কাছেই যে মাইক ছিল খেয়াল করেননি। মাইকে দু’জনের কথোপকথন শুনতে পেয়েছিলেন সভার সকলেই। তার কয়েকদিনের মধ্যেই শিবকুমার ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়ার কথোপকথন ফের ধরা পড়ে মাইকে। গত ৩১ অক্টোবর প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এক সভায় গিয়েছিলেন দু’জন।

সভায় উপস্থিত সকলে শুনতে পান, সিদ্দারমাইয়া প্রশ্ন করছেন, সভায় প্রাক্তন উপ প্রধানমন্ত্রী বল্লভভাই প্যাটেলের কোনও ছবি নেই কেন? ৩১ অক্টোবরই বল্লভভাই প্যাটেলের জন্মদিবস। তাঁর জন্ম হয়েছিল উনবিংশ শতকে। সিদ্দারামাইয়াকে শিবকুমার বলেন, আমরা কখনই সর্দার প্যাটেলের ছবি রাখি না। সিদ্দারামাইয়া ইঙ্গিত দেন, এতে কংগ্রেসকে বিজেপির সমালোচনার মুখে পড়তে হতে পারে।

সিদ্দারামাইয়া কন্নড় ভাষায় শিবকুমারকে বলেন, “আজ তো সর্দার প্যাটেলের জন্মদিন। তাঁর একটাও ছবি নেই কেন?” শিবকুমার বলেন, “আপনি ঠিকই বলেছেন। আজ সর্দার প্যাটেলের জন্মদিন। কিন্তু আমরা কখনও তাঁর ছবি রাখি না।” সিদ্দারামাইয়া তখন প্রশ্ন করেন, “বিজেপি যদি আমাদের সমালোচনা করে, তাহলে কী হবে?” শিবকুমার তখন এক কংগ্রেসকর্মীকে বলেন, “আপনাদের কাছে বল্লভভাই প্যাটেলের কোনও ছবি আছে? যদি থাকে, শীঘ্র নিয়ে আসুন।”

পরে শিবকুমার সিদ্দারামাইয়াকে বলেন, “এবার থেকে আমরা সর্দার প্যাটেলের ছবি রাখব।” সিদ্দারামাইয়া বলেন, “তাঁর ছবি রাখাই উচিত”।

বিজেপির বিধায়ক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী রেণুকাচার্য ওই কথোপকথনের একটি ভিডিও প্রকাশ করেছেন। দলের সাধারণ সম্পাদক সি টি রবি টুইট করে বলেন, “লজ্জার ব্যাপার হল, ভৃত্যেরা এক ইতালীয়কে এত ভয় করে।” সি টি রবি পরোক্ষে কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীর কথা উল্লেখ করেছেন।

রেণুকাচার্য বলেন, “নেহরু পরিবার সর্দার প্যাটেলকে ঘৃণা করে। একথায় যদি কারও সন্দেহ থাকে, তাঁরা এই ভিডিওটি শুনতে পারেন। কংগ্রেস নেতা সিদ্দারামাইয়া ও শিবকুমার বিজেপির ভয়ে সর্দার প্যাটেলের ছবি রাখবেন বলছেন।” শিবকুমার বা সিদ্দারামাইয়া এখনও রেণুকাচার্যের বক্তব্যের কোনও প্রতিক্রিয়া জানাননি।

কয়েকদিন আগে দুই কংগ্রেস নেতা নিজেদের মধ্যে বলাবলি করছিলেন, শিবকুমার ও তাঁর এক সঙ্গী ৫০-১০০ একর জমির মালিক হয়েছেন। এই কথোপকথনের রেকর্ড টুইট করেন বিজেপি নেতা অমিত মালব্য। একইসঙ্গে তিনি কংগ্রেসের সমালোচনা করেন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.