‘রাহুল গান্ধী বুঝেছেন, মমতার সঙ্গে হাত মেলালে সর্বনাশ হবে’, কটাক্ষ দিলীপের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একুশের সাফল্যের পর চব্বিশে দিল্লির লক্ষ্যে এগোচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজধানী সফর শেষে তিনি জানিয়েছেন বারবার দিল্লি যাবেন। বিরোধী নেতাদের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন তৃণমূল নেত্রী। কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিল্লি সফরকে শনিবার তীব্র কটাক্ষ করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

দিল্লিতে বিরোধী নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করলেও রাহুল গান্ধীকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করেননি। এই প্রসঙ্গ টেনে এদিন দিলীপ বলেন, রাহুল গান্ধী মুখ্যমন্ত্রীর সাথে যৌথ প্রেসমিট করেননি, কারণ তিনি বুঝে গিয়েছেন ওঁর সঙ্গে জোটে গেলে সর্বনাশ হবে। পশ্চিমবঙ্গে কংগ্রেস অস্তিত্ব বজায় রাখার জন্য ওঁর সঙ্গে সমঝোতা করতে চাইছে।

এদিন দিলীপ বাবু বলেন, মুখ্যমন্ত্রী দিল্লি গেলেন এখানে সব ভেসে গেল। কলকাতার প্রাক্তন মেয়র জেলে না থাকলেও কলকাতাকে বাঁচাতে পারলেন না। অন্যকে দোষ না দিয়ে কিছু করে দেখানো দরকার।কলকাতা লন্ডনের বদলে ভেনিস হয়ে গিয়েছে।

ফিরহাদ হাকিম সিবিআই হেফাজতে থাকাকালীন বলেছিলেন মানুষের জন্য কাজ করতে পারছেন না তিনি। এতে মানুষের ক্ষতি হচ্ছে। এদিন সেই সূত্র টেনেই কটাক্ষ করেন দিলীপ। বলেন, এখন তো তিনি জেলে নেই, তাহলে কেন মানুষকে সাঁতার কাটতে হচ্ছে, কেন মানুষ বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হচ্ছেন? এখন তো আর সিবিআই দায়ী নয়।

দিল্লি যাওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে মান্থলি করার পরামর্শ দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর কথায়, দিল্লি গিয়ে মন্ত্রীদের হাতে পায়ে ধরতে হবে ফান্ডের জন্য আর নিজের পার্টিকে সর্বভারতীয় করতে হবে। তাই বিভিন্ন রাজ্যের নেতার কাছে এমএলএ এমপির সিট চাইছেন।

রাজ্যে উপনির্বাচন যথাসময়ে হওয়া উচিত বলেই জানিয়েছেন দিলীপ বাবু। কিন্তু কলকাতার অবস্থা যদি সত্যিই স্বাভাবিক হয়ে যায় তবে কেন লকডাউন পুরো উঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে না, প্রশ্ন করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী থাকার জন্যেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এত বেশি করে উপনির্বাচন চাইছেন, জানান দিলীপ বাবু।

উল্লেখ্য এ ব্যাপারে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে তাঁর মতের ভিন্ন। শুভেন্দু অধিকারী দাবি করেছেন রাজ্যে সকলকে ভ্যাকসিন দেওয়া সম্পন্ন হওয়ার পরেই উপনির্বাচন হওয়া উচিত। তার আগে নয়। আর দিলীপ বাবু বললেন, যথাসময়ে উপনির্বাচন হওয়া উচিত।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More