দেশবাসীকে তিনটি বিকল্প পথ দেখিয়েছে বিজেপি, রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে কটাক্ষ রাহুলের

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত মাসে রান্নার গ্যাসের দাম বেড়েছে তিনবার। সোমবার ফের বেড়েছে গ্যাসের দাম। এই প্রেক্ষিতে এদিন সরকারকে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি রাহুল গান্ধী। তিনি টুইটারে লিখেছেন, দেশবাসীকে তিনটি বিকল্প পথ দেখিয়েছে সরকার। তিনি পরোক্ষে বোঝাতে চেয়েছেন, বেশি দাম দিয়ে রান্নার গ্যাস কেনা ছাড়া দেশবাসীর সামনে আর কোনও পথ খোলা নেই।

রাহুল লিখেছেন, “এলপিজি সিলিন্ডারের দাম আবার বেড়েছে। মানুষের জন্য তিনটি বিকল্প রাস্তা খোলা রেখেছে মোদী সরকার। ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ করে দিন। কুকিং স্টোভ ছুড়ে ফেলে দিন। মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে পেট ভরান।”

সোমবার থেকে ভরতুকি বিহীন গ্যাসের সিলিন্ডার পিছু ২৫ টাকা করে দাম বেড়েছে। দিল্লিতে এখন এক সিলিন্ডারের জন্য দিতে হবে ৮১৯ টাকা। ফেব্রুয়ারিতে গ্যাসের দাম বাড়ার পরে একাধিক সাংবাদিক বৈঠক করে কংগ্রেস। একটি সাংবাদিক বৈঠকে দলের মুখপাত্র সুপ্রিয়া শ্রীনাতে বলেন, “নরেন্দ্র মোদীর সরকার কোনও নীতির তোয়াক্কা করে না। তারা কেবল কৃষকদের প্রতি অন্যায় করেনি, সেই সঙ্গে প্রত্যেক গৃহবধূ ও সাধারণ মানুষের পিঠে বিপুল বোঝা চাপিয়ে দিয়েছে।” কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা টুইট করে বলেন, “যারা শত শত কোটি টাকার মালিক, তারাই মোদী সরকারের বন্ধু। এই সরকারের আমলে ব্যাপক মুদ্রাস্ফীতি দেখা গিয়েছে।”

গত বছর রান্নার গ্যাসের দাম সবচেয়ে বেশি বেড়েছিল ফেব্রুয়ারি মাসে। সেবার এক লাফে ১৪৯ টাকা দাম বেড়েছিল এলপিজি সিলিন্ডারের। তারপর জুন মাসে বেড়েছিল ৩২ টাকা। জুলাই মাসে আবার বাড়ে সাড়ে চার টাকা। গত ডিসেম্বর থেকে রান্নার গ্যাসের দাম মোট ১৭৫ টাকা বেড়েছিল। কিন্তু বছরে ১২টি সিলিন্ডারের দামে গ্রাহকের যে ভর্তুকি পাওয়ার কথা, তার পরিমাণ সেই জুন থেকে স্থির, এমনটাই দাবি ডিলার ও তেল সংস্থা সূত্রের।

সাধারণত আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম ও গ্যাসের দামের উপরেই নির্ভর করে ভারতে এলপিজি গ্যাসের দাম কী হবে। অপরিশোধিত তেলের দাম বেড়েছে। ভারতে যে চারটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা তেল ও গ্যাসের দাম নির্ধারণ করে তারা হল ইন্ডিয়ান অয়েল, ভারত পেট্রোলিয়াম, হিন্দুস্তান পেট্রোলিয়াম ও অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেড। তারা মূলত ডলারের সঙ্গে টাকার বিনিময় মূল্য হিসেব করে তেল ও গ্যাসের দাম নির্ধারণ করে। অর্থাৎ ডলারের হিসেবে টাকার মূল্য কমলে গ্যাস ও তেলের দামও বাড়ে। এই সব হিসেব করেই বাড়ানো হয়েছে রান্নার গ্যাসের দাম।

গত ডিসেম্বর থেকে সিলিন্ডারের দাম সংশোধনেও বদল এনেছে তেল সংস্থাগুলি। নভেম্বরের শেষ দিনে তারা বলেছিল, ডিসেম্বরে দাম বাড়বে না। কিন্তু দু’দফায় মাঝরাতে মোট ১০০ টাকা বেড়েছে। একই ঘটনার পুরনাবৃত্তি ঘটে ফেব্রুয়ারিতে। দু’দফায় মাঝরাতে দাম বাড়ে ৭৫ টাকা। এখন আবারও বাড়ল ২৫ টাকা। এমনিতেই পেট্রোল, ডিজেলের দাম প্রায় প্রতিদিনই বাড়ছে। কোথাও তো পেট্রোল সেঞ্চুরি ছুঁয়েছে। তার ফলে এমনিতেই মধ্যবিত্তের পকেটে টান পড়ছে। তারপরে এবার রান্নার গ্যাসেরও দাম বাড়ায় চাপ বেড়েছে মধ্যবিত্তের হেঁশেলে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.