পুজোর ব্যাটন চার কন্যার হাতে, ঢাকও বাজাবে মেয়েরাই, নজির গড়ছে মুখ্যমন্ত্রীর পাড়ার ক্লাব

3

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আধুনিকতার পথে যতই এগিয়ে চলুক বিজ্ঞান, সমাজের কানাগলিতে আজও শক্ত ঘাঁটি গেড়ে আছে পুরুষতান্ত্রিকতা। আশেপাশের নানা ঘটনাতেই তার পরিচয় মেলে। পুরুষতান্ত্রিক সমাজের এই প্রচলিত গতানুগতিক ভাবধারাতেই জোরদার ধাক্কা দিতে এবার তৈরি মুখ্যমন্ত্রী পাড়ার ক্লাবের পুজো (Kalighat)।

পুজোয় বেরোতে অরুচি? বাড়ির ডাইনিংয়েই রেস্তোরাঁ হাজির হচ্ছে সল্টলেকে

কালীঘাটের ৬৬ পল্লীতে বরাবরই অভিনব ভাবনা ফুটে ওঠে দুর্গা মণ্ডপে। তবে এবার যে ভাবনার রঙে সেজে উঠছে এই ক্লাব, তা অনেকটাই আলাদা। প্রথামাফিক গতে বাঁধা ধারণায় সজোরে আঘাত করতে পারে ৬৬ পল্লী। কারণ এবছর এখানে পুজোর সমস্ত আয়োজন করছেন মেয়েরা। হ্যাঁ, পুরোহিতও মহিলাই।

চারজন মহিলার এক দল মিলে ৬৬ পল্লীর এবারের পুজোর সমস্ত আয়োজন করছেন। ঢাকও মেয়েরাই বাজাবে এখানে। যে চারজনের হাত থেকে ৬৬ পল্লীর দেবী প্রতিমা পুজো পাবেন তাঁরা হলেন নন্দিনী, সেমন্তী, রুমা এবং পৌলমী। এবছর ৬৬ পল্লীর পুজো পা দিন ৭১ বছরে।

চার মহিলা পুরোহিতের এই দল কয়েক বছর আগে তৈরি হয়েছিল। ইতিমধ্যে শহরের একাধিক বিয়ে, শ্রাদ্ধ, গৃহপ্রবেশে দেখা গেছে তাঁদের। এবার ৬৬ পল্লীর পাঁচ দিনের দুর্গা পুজোর দায়িত্ব তাঁদের কাঁধে। এর জন্য গত কয়েক মাস ধরে প্রস্তুতি নিয়েছেন তাঁরা। মায়ের পুজোয় কোনও খুঁত রাখতে চান না নন্দিনীরা।

নন্দিনী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, আমরা চাই না সমাজে কোনও লিঙ্গ বিভেদ থাকুক। আমরা অনেক দিন ধরে এই পুজো করার জন্য অনেক পড়াশোনা করেছি।

এই ক্লাবের সদস্য প্রদ্যুম্ন মুখোপাধ্যায় বলেছেন, প্রতি বছরই আমরা নতুন কিছু নিয়ে আসার চেষ্টা করি। কিছুদিন আগে আমাদের ক্লাবে যিনি পুজো করতেন তিনি মারা গেছেন। তাই আমরা ভাবলাম এই চার জন মহিলা পুরোহিতকে পুজোর দায়িত্ব দেব এবার। আশা করছি সব ভাল হবে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like
3 Comments
  1. […] পুজোর ব্যাটন চার কন্যার হাতে, ঢাকও বাজ… […]

  2. […] পুজোর ব্যাটন চার কন্যার হাতে, ঢাকও বাজ… […]

  3. […] পুজোর ব্যাটন চার কন্যার হাতে, ঢাকও বাজ… […]

Leave A Reply

Your email address will not be published.