ভিডিওতে দেখুন: তাড়া করে ধরলেন মোবাইল চোরকে, ১০ হাজার পুরস্কার, সংবর্ধনা এএসআইকে

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মোবাইল চোরকে (mobile theft) তাড়া করে পাকড়াও  করেছেন। রাতারাতি হিরো (hero) ম্যাঙ্গালুরুর পুলিশ অফিসার (mangaluru police)। ইন্টারনেটে তাঁর তত্পরতা, দায়িত্ববোধের ভূয়সী প্রশংসা হচ্ছে। ঘটনাটি বুধবারের, তবে তাঁর মোবাইল চোরকে দৌড়ে ধরে  ফেলার ভিডিওটি ভাইরাল হতেই জানাজানি হয়।

যাঁর ঘটনাটি ঘটার সঙ্গে সঙ্গে অ্যাকশনে (action) নামার প্রশংসা করছেন সকলে, তিনি ম্যাঙ্গালুরু পুলিশের এএসআই (asi) বরুণ আলভা। পুলিশ জানিয়েছে, রাজস্থান থেকে ম্যাঙ্গালুরু আসা গ্রানাইট খনি শ্রমিক  প্রেম নারায়ণ যোগী নেহরু ময়দানের কাছে বিশ্রাম নিচ্ছিলেন। আচমকা তাঁর হাত থেতে মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেয় হরিশ পূজারী নামে ছিনতাইবাজ। সে একা ছিল না, তার গ্যাংয়ের সদস্যরাও ছিল। ফোনটি ছিনতাই হতেই চিত্কার করে ওঠন যোগী। ঘটনাস্থলের আশপাশেই ছিলেন বরুণ। সঙ্গে পুলিশ টিমের লোকজন। যোগীর চিত্কার শুনে রাস্তায় উপস্থিত  লোকজন পূজারীকে তাড়া করেন। দৌড় শুরু করেন বরুণও। পুলিশকে বিভ্রান্ত  করতে লোকজনের ভিড়ে ঢুকে পড়ে মোবাইল চোর চক্র। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। বরুণ ঠিক  পূজারীর নাগাল পেয়ে যান। পুলিশ টিমের বাকিদের হাতে ধরা পড়ে যায় দ্বিতীয় অভিযুক্ত সামন্থ। তৃতীয় অভিযুক্ত রাকেশ অবশ্য  পালাতে সক্ষম হয়।

 

পুলিশের তদন্তে বেরয়, পূজারীর দলবল ম্যাঙ্গালুরু সিটিতে সক্রিয় ও অসংখ্য চুরি,ডাকাতির ঘটনায় জড়িত। সুতরাং পূজারী  ধরা পড়ায় কিছুটা হলেও হাঁফ ছেড়ে বাঁচবে শহরবাসী।

এজন্য কৃতিত্ব প্রাপ্য যাঁর,  সেই  এএসআই বরুণকে ১০ হাজার টাকা নগদ পুরস্কার (award) দিয়ে বৃহস্পতিবার সংবর্ধনা দেন ম্যাঙ্গালুরু সিটি পুলিশ কমিশনার। নেটিজেনরা তাঁর সুখ্যাতি করে বলছেন, এমনই হওয়া উচিত একজন যথার্থ দক্ষ  পুলিশ  অফিসারের। অপরাধ মোকাবিলায় চাই এমন জিরো টলারেন্স মনোভাব।

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.