লখনউয়ে ক্যাবচালককে মার, ভিডিও ভাইরাল, এফআইআর মহিলার বিরুদ্ধে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: লখনউয়ে ট্রাফিক সিগনালে ক্যাবচালককে মহিলার মারধরের ভাইরাল ভিডিও ঘিরে অসন্তোষ ছড়িয়েছে সোস্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই দাবি করেন, মহিলাকে গ্রেফতার করা উচিত। ট্যুইটারে #arrestlucknowgirl’ হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডিং হয়। মহিলার হাতে নিগৃহীত ক্যাবচালকের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের হয়েছে। ডেপুটি পুলিশ  কমিশনার, সেন্ট্রাল লখনউ চিরঞ্জীব নাথ সিনহা জানান, এক মহিলার একটি লোককে চড় মারার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় অভিযোগ জমা পড়েছে। তার ভিত্তিতে কৃষ্ণনগর থানায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, মহিলার পরনে সাদা টি শার্ট, জিনস, চোখে চশমা, পায়ে স্পোর্টস শ্যু। লখনউয়ে আওধ মোড়ে জেব্রা ক্রসিংয়ে রাস্তা পেরচ্ছেন তিনি। তাঁর পাশ দিয়ে গাড়ি যাচ্ছে। তিনি একটি ক্যাবের সামনে দাঁড়িয়ে তার দরজা খুলে চালককে জামার কলার ধরে টেনে বাইরে বের করে চড় মারছেন। চালক পথচারীদের আবেদন করছেন, কেউ যদি পুলিশ ডাকেন। তাঁকে বলতে শোনা যাচ্ছে, আপ লোগ মহিলা পুলিশ বুলাইয়ে! ওদিকে মহিলা বারবার চালককে আঘাত করে চলেছেন। একসময় তাঁকে মাটিতে পড়ে যাওয়া ক্যাবের ফোনটা ছুঁড়ে ফেলতে দেখা যায়। এক ভদ্রলোক হস্তক্ষেপ করতে এলে তাঁকেও চড় মারেন মহিলা। এক ট্রাফিক পুলিশ এসে চালক ও মহিলাকে আলাদা করে দেন, দেখা যায়, দুজনকে তিনি রাস্তার ধারে সরিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু পরক্ষণেই আবার ওই মহিলা চালককে মারতে শুরু করেন।

এদিকে সাদাত আলি সিদ্দিকি নামে ওই ক্যাবচালকের অভিযোগ, ঘটনার পর পুলিশ তাঁকে ও সেই মহিলাকে থানায় নিয়ে যায়। কিন্তু একতরফা মহিলার নালিশ শুনেই পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে। এমনকী পুলিশ তাঁর অভিযোগ তো শোনেইনি, উল্টে তাঁকে ২৪ ঘন্টা লক আপে পুরে রাখে। ক্যাবচালকের আইনজীবীর বক্তব্য, তাঁর মক্কেলের ভাই গোটা ঘটনাটা জানার পর কয়েকজন বন্ধুকে নিয়ে থানায় যান, ব্যক্তিগত বন্ডে ভাইকে ছাড়িয়ে আনেন। পুলিশওদের থানায় বসিয়ে থাকে, ক্যাবচালককে জরিমানাও করে।

ট্যুইটারে ঘটনার ভিডিও দেখে ক্ষোভে, রাগে নেটিজেনরা বলেন, যখন গাড়ি চলছে, তখন কী করে ওই মহিলা রাস্তা পেরচ্ছিলেন! এটা কি ওনার দোষ নয়, কী করে পুলিশ এটা মানল? কেউ লেখেন, মহিলা তো আত্মহত্যা করতে যাচ্ছিলেন। চলন্ত গাড়ির সামনে  চলে আসেন। ক্যাবচালক সামলে নিতে না পারলে মহিলাকে খুনের দায়ে পড়তেন! কেউ কেউ বলেন, মহিলা বলে ওর প্রতি বিন্দুমাত্র শিথিলতা দেখানো ঠিক নয়। এটা অবাঞ্ছিত ঘটনা। ক্যাবচালককে ধন্যবাদ, তিনি সংযম দেখিয়েছেন। ওনারই কিন্তু মাথা গরম হওয়ার কথা।

এদিকে ডিসিপি সেন্ট্রাল (লখনউ) কথা দিয়েছেন, পুলিশ এ ঘটনায় পক্ষপাতহীন তদন্ত করবে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More