আমেরিকা কানাডার উন্নত চরস আসে কলকাতায়, ছড়িয়ে যায় যুবসমাজে, বড় চক্র ফাঁস

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কুরিয়ারের মাধ্যমে সুদূর কানাডা, ক্যালিফোর্নিয়া এমনকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারতে আসছে নিষিদ্ধ মাদক। এবার সেই বড়সড় চক্রে পুলিশের জালে জড়ালেন দুই মহিলা। তাঁদের কাছ থেকে উদ্ধার হল ২০ কেজি ভিনদেশী মাদক দ্রব্য।

সূত্রের খবর, বেশকিছুদিন ধরেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া এবং কানাডা থেকে উন্নত প্রজাতির মাদক ভুয়ো কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যম দিয়ে দেশে প্রবেশ করছে বলে খবর পায় নার্কোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। সেই তথ্য ধরেই বিভিন্ন আন্তর্জাতিক কুরিয়ার সংস্থার উপর নজরদারি চালানো হচ্ছিল। আর তাতেই ধরা গেছে এই চক্রের সঙ্গে যুক্ত দুই মহিলাকে।

জানা গেছে, গত ২৭ তারিখ কলকাতায় এসে পৌঁছয় একটি পার্সেল যেখানে খেলনা রয়েছে বলে তথ্য ছিল কুরিয়ার সংস্থার কাছে। তবে নার্কোটিক্সের আধিকারিকদের সন্দেহ হলে সেটিকে তল্লাশি করেন তাঁরা। সেখান থেকেই উন্নত প্রজাতির মাদক(চরস) উদ্ধার হয়। তিনদিন ধরে মোট ৫০টি বিদেশি পার্সেল আটক করেন আধিকারিকরা। তাঁরা জানান, এটা খুবই উচ্চমানের মাদক, শুধুমাত্র বিদেশেই পাওয়া যায়। কলকাতায় আনা হচ্ছিল।

সেখান থেকেই নার্কোটিক্স দফতরের হাতে তথ্য উঠে আসে ডার্কনেট প্লারটফর্মের মধ্যে দিয়ে এই মাদক বুকিং করা হয়েছিল। যার ফলে ডিএলইও রাডার এর চোখকে ফাঁকি দেওয়া গিয়েছিল। ধৃতরা হলেন শ্রদ্ধা সুরানা, তৃণা ভাটনাগর এবং করণ কুমার গুপ্তা।

সূত্রের খবর, পঁচিশ বছর বয়সি শ্রদ্ধা সুরানা নিজের পরিচয় গোপন করে কলকাতায় সিমরান সিং নামে বসবাস করতেন। ভুয়ো আধার কার্ড পর্যন্ত তৈরি করিয়েছিলেন তিনি। তিনি এই ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে বিদেশ থেকে মাদক অর্ডার করেছিলেন। এই মাদক পাচার চক্রের মূল পাণ্ডা হিসাবে কাজ করতেন তিনি। তারপর তিনি কুরিয়ার সার্ভিসের ছেলেকে দিয়ে বেশি টাকার বিনিময়ে বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে মাদক পৌঁছে দিতেন। কয়েক লক্ষাধিক টাকার বিনিময় এই যুবতীর হাত থেকেই উন্নত প্রজাতির মাদক ছড়িয়ে পড়ত যুবসমাজে।

তৃণা গ্রাহক হিসাবে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং প্লার্টফর্ম ব্যবহার করে শ্রদ্ধাকে মোটা টাকার বিনিময়ে এই উন্নত মাদকের অর্ডার দেন বলে নার্কোটিক্স সূত্রে খবর। অভিযুক্তদের আগামীকাল আদলতে তোলা হবে। শ্রদ্ধার জাল আর কতদূর বিছিয়ে রয়েছে তার তদন্ত চলছে। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় মাদকের রমরমা এবং এর পিছনে কোনও বড় যোগ রয়েছে কিনা তদন্ত শুরু হয়েছে তা নিয়েও।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More