করোনা আক্রান্ত হয়েও নানা অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন, কবুল করলেন জকোভিচ

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কোভিড আক্রান্ত হয়েও বিধি মানেননি, সেটি নিজের মুখে স্বীকার করলেন নোভাক জকোভিচ। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের আগে সার্বিয়ান কিংবদন্তি বিতর্ক সৃষ্টি করেছেন। এক, তিনি কোভিড ভ্যাকসিন নেননি, নেবেনও না, সেটি ঘোষণা করেছেন। এই নিয়ে বিতর্ক চলছে। তার মধ্যে তিনি গত মাসে করোনা আক্রান্ত হয়েও নানা অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন, সেই কথা নিজ মুখেই স্বীকার করেছেন জকোভিচ।

মাস্ক ছাড়া ছবি তোলার কথাও মেনে নিয়েছেন বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা। জকোভিচ এও মানছেন, অস্ট্রেলিয়ায় ভিসার আবেদনের সময়ও তিনি ভুল তথ্য দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ফর্ম পূরণ করার সময় তাঁর এজেন্ট ভুলটি করেন। সেজন্য তিনি ক্ষমাও চেয়েছেন।

দিন চারেক আগেই বিশ্ব টেনিসের শীর্ষে থাকা খেলোয়াড়ের আইনজীবী অস্ট্রেলিয়ার আদালতে জানিয়েছেন, নোভাক গত ১৬ ডিসেম্বর করোনায় আক্রান্ত হন। তাই কোভিড টিকা নিতে পারেননি। সেই সঙ্গে আদালতে আরও জানানো হয়েছে, ইতিমধ্যেই সেই ঘটনার ১৪ দিন পেরিয়ে গিয়েছে। কোনও উপসর্গ তাঁর শরীরে নেই। অস্ট্রেলিয়ায় আসার জন্য যাবতীয় শর্ত তিনি পূরণ করেছেন।

তিনি করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সময় সার্বিয়ার একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। সেদিন তাঁর ডাকটিকিট প্রকাশ করা হয়। অথচ সেদিন বিনা মাস্কেই সেই অনুষ্ঠানে ছিলেন। তিনি খুদেদের অকাতরে সই বিলিয়েছিলেন। জকোভিচের দাবি, এসবের কোনও কিছুই তিনি করেননি। সবটাই ভিত্তিহীন অভিযোগ। তারপরেও অবশ্য বিতর্ক থামছে না। কারণ অস্ট্রেলিয়া সরকার নতুন করে তাঁর ভিসা বাতিল করতে পারে। পাশাপাশি তিনি যাতে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে না খেলতে পারেন, তেমনও নির্দেশিকা দিতে পারে।

এদিকে আবার কোভিড আক্রান্ত হওয়ার পরে ফ্রান্সের এক সংবাদমাধ্যমকে যে তিনি সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন, তাও মানছেন টেনিসের নামী তারকা। জকোভিচ বলেছেন, ‘‘আমি পূর্বনির্ধারিত সাক্ষাৎকারটি দিয়েছিলাম। কারণ ওই সাংবাদিককে হতাশ করতে চাইনি। তবে গোটা সাক্ষাৎকারটি আমি দিয়েছিলাম দূরত্ব বিধি মেনে এবং মাস্ক পরে। শুধুমাত্র ছবি তোলার আগে মাস্ক খুলেছিলাম।’’

এই কথা বলার পরেও জোকারকে নিয়ে বিতর্ক থামছে না, বরং দিনদিন বাড়ছেই।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.