সোনামণির ডাকে আপ্লুত প্রসেনজিৎ, কথা দিলেন দেখা করবেন, ধন্যবাদ শিলাজিৎকে

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বীরভূমের গ্রাম থেকে ফ্যানগার্ল সোনামণির ভিডিও বার্তা ফেসবুকের মাধ্যমে অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে পৌঁছে দিয়েছিলেন শিলাজিৎ। গায়ক শিলাজিতের সরল, সহজ, অনাবিল ভিডিও মন ছুঁয়ে গেছিল সোশ্যাল মিডিয়ার বাসিন্দাদের। সেই সঙ্গে সামনে এসেছিল, গড়গড়িয়া গ্রামের মেয়ে সোনামণি রুজের আর্তি। বুম্বাদার প্রতি সে কী ভালবাসা ফ্যানগার্লের!

এবার পালা উত্তরের। ভিডিওটি ফেসবুকে আপলোড হওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যেই চলে এল প্রসেনজিতের ভিডিও। ‘সোনামণির জন্য বার্তা’ লেখা সেই ভিডিওয় প্রসেনজিৎ বললেন, “সোনামণি, আমি তোমার ভিডিওটা দেখলাম, শিলা আমার ছোটভাইয়ের মতো। ওকে ধন্যবাদ, আমাদের এতটা কাছে নিয়ে এসেছে বলে। আমি তোমার কথাগুলো শুনে অভিভূত। তোমাদের ভালবাসা আছে বলেই আমি আছি, তোমরাই আমার শক্তি, প্রেরণা। আমার পাশে থেকো, সঙ্গে থেকো, আমায় ভালবেসো এভাবেই।”

দেখুন প্রসেনজিৎ কী বললেন। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

সোনামণি, প্রসেনজিতের যাকে বলে ‘ডাই হার্ড’ ফ্যান। প্রিয়তম ‘বুম্বাদাদা’কে একবার চোখের দেখা দেখার জন্য যা খুশি করতে পারেন। শিলাজিৎকে তিনি এতবার সে কথা জানিয়েছেন, যে শিলাজিৎ এবার সরাসরি প্রসেনজিতের দ্বারস্থ, সোনামণিকে সঙ্গে নিয়েই। মাধ্যমটি হল ফেসবুক।

ভিডিওয় দেখা গেছে, সোনামণির স্বাভাবিক কথা বলায় খানিক জড়তা রয়েছে। স্পষ্ট কথা বলতে পারেন না তিনি। কিন্তু যা বলেন, তা যে কতটা অন্তর থেকে বলেন, তা ভিডিওটি দেখলেই বোঝা যায়।

ভিডিওয় প্রথমে নিজের পরিচয় দেন শিলাজিৎ। তার পরিচয় করিয়ে দেন সোনামণি রুজের। শিলাজিৎ বলেন, “আমি এলেই সোনামণি আমায় তোমার কথা বলে খালি, তুমি শুনে দেখো। আমি জানি, তুমি অনেক বড়লোক, তোমায় ছোঁয়া যায় না। তুমি শোনো ওর মুখে, কী বলতে চায়।”

এর পরে সোনামণি বলতে থাকেন, “দাদা, তুমি এসো আমাদের গ্রামে, তোমায় দেখব, প্রণাম করব, ব্যস। সময় করে এসো তুমি।” শিলাজিৎ মজা করে বলতে থাকেন, সোনামণিকে তিনি মজা করে বলেন, ‘বুম্বাদাকে এমন মার মেরেছি না…!’ বলতে না বলতেই সোনামণি প্রতিবাদ করে ওঠেন, বলেন, বুম্বাদাদা আমার দাদা।

আপনিও দেখুন সেই অনাবিল ভিডিও, ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

সোনামণির কথাগুলি মন ছুঁয়ে গেছে সকলের। বুম্বাদারও। তাই তিনি বলেন, “আমি কথা দিচ্ছি, চারপাশের পরিস্থিতি একটু ঠিক হলে আমি যাব। শিলার সঙ্গে কথা বলে তোমাদের কাছে যাব, সময় কাটাব। আমায় মনে রেখো, আশীর্বাদ কোরো। তোমরা ভাল থেকো, সুস্থ থেকো, গ্রামের সবাই ভাল থেকো। শিলাকে আবারও ধন্যবাদ, আমাদের এই যোগাযোগটা করে দেওয়ার জন্য।”

দুটি ভিডিও দেখেই আনন্দে, আবেগে ভেসে গিয়েছেন নেটিজেনরা। সরল, সাদাসিধে সোনামণির আর্তি যেমন ছুঁয়ে গিয়েছে সকলকে, তেমনই এত তাড়াতাড়ি এত আন্তরিক ভাবে বুম্বাদার উত্তর পেয়েও মুগ্ধ তাঁর ফ্যান-ফলোয়াররা। সকলেই লিখেছেন, প্রসেনজিৎ যেন একটিবার দেখা করেন সোনামণির সঙ্গে। শিলাজিৎকেও কুর্নিশ করেন সকলে। মাটির কাছাকাছি পৌঁছে এভাবে এক অনুরাগিনীর বার্তা তাঁর হিরোর কাছে পৌঁছে দেওয়া ও তার উত্তরে প্রসেনজিতের আন্তরিকতা– দুইই প্রশংসার চোখে দেখছেন নেটিজেনরা।

পড়ুন: বীরভূমের গ্রামে প্রসেনজিতের ফ্যানগার্ল, ভিডিও করে পৌঁছে দিলেন শিলাজিৎ! ধন্য ধন্য করছেন অনুরাগীরা

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.