স্কুলের বাথরুম নোংরা, উত্তরপ্রদেশে ঋতুস্রাবের জন্য মাসে তিনদিন ছুটি চাইছেন শিক্ষিকারা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: স্কুল গুলিতে বাথরুমের অবস্থা ভাল নয়। তাই ঋতুস্রাবের জন্য এবার থেকে মাসে তিন দিন করে ছুটি দাবি করলেন উত্তরপ্রদেশের শিক্ষিকারা। শিক্ষিকাদের একটি নবগঠিত সংগঠন সম্প্রতি এই দাবি তুলেছে। মাসে তিন দিনের জন্য ‘পিরিয়ড লিভ’ দাবি করেছেন তাঁরা।

ওই সংগঠনের দাবি, উত্তরপ্রদেশে সরকারি স্কুলগুলিতে বাথরুমের অবস্থা খুবই খারাপ। তা অধিকাংশ সময়েই ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে দাঁড়ায়। তাই ঋতুস্রাবের সময় শিক্ষিকাদের যথেষ্ট অসুবিধার মধ্যে পড়তে হয়।

উত্তরপ্রদেশ বেসিক এডুকেশন ডিপার্টমেন্টের শিক্ষিকারা এই প্রচার অভিযানটি চালাচ্ছেন। উত্তরপ্রদেশ মহিলা শিক্ষক সংঘের সদস্যরা ইতিমধ্যে দাবিদাওয়া নিয়ে রাজ্যের মন্ত্রীর দরবারেও হাজির হয়েছেন। এখন রাজ্যের জনপ্রতিনিধিদের কাছে দাবি জানাচ্ছেন তাঁরা।

মাত্র ৬ মাস আগে উত্তরপ্রদেশের শিক্ষিকাদের এই সংগঠন তৈরি হয়েছিল। রাজ্যের মোট ৭৫ জেলার মধ্যে ৫০টিতেই ছড়িয়ে পড়েছে এই সংগঠন।

সংগঠনের প্রধান সুলোচনা মৌর্য জানান, বেশিরভাগ স্কুলেই ২০০-৪০০ জন পড়ুয়ার সঙ্গেই একটি বাথরুম ভাগ করে নিতে হয় শিক্ষিকাদের। বাথরুম গুলো নিয়মিত পরিষ্কারও করা হয় না। এমনকি পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে অনেক শিক্ষিকা বাথরুম ব্যবহার করবেন না বলে কাজের সময় জল কম খান, যার ফলে ইউরিন ইনফেকশন দেখা দেয়। পিরিয়ডের সময় বাথরুম ছাড়া গতি নেই। তাই খুব সমস্যা হয়।

মৌর্য আরও জানান, প্রাইমারি স্কুলগুলিতে ৬০-৭০ শতাংশ শিক্ষক মহিলা। ছেলেরা এই সমস্যা নিয়ে কখনও কথা বলেনি। কিন্তু আমাদের বলতে হবে।

যদিও উত্তরপ্রদেশের সরকারি কাগজপত্র বলছে স্কুলগুলিতে ছেলে ও মেয়েদের জন্য আলাদা আলাদা বাথরুম নির্মাণ করা হয়েছে। তবে তা হলেও সেই বাথরুম পরিষ্কার করা হয় না একেবারেই, অভিযোগ ভুক্তভোগীদের।

সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের এই দাবি আগেই তুলে ধরেছিল উত্তরপ্রদেশের মহিলা শিক্ষকদের ওই সংগঠন। তাতে সাফল্যও এসেছে। অনেক পুরুষ শিক্ষকও এ ব্যাপারে সহমত পোষণ করেছেন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More