হাওড়ায় করোনা প্রাণ কাড়ল চিকিৎসকের, দুই আইনজীবীর মৃত্যুতে বন্ধ হল আদালত

দ্য ওয়াল ব্যুরো, হাওড়া: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে প্রাণ কাড়ল হাওড়ার চিকিৎসকের। শোকের ছায়া এলাকায়।

কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়েছে এই রাজ্যে। হাওড়া জেলাতেও তার প্রভাব এসে পড়েছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে মৃত্যু হল স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ প্রশান্ত মুখার্জির(৭৮)।
কোভিড পজেটিভ হওয়ায় গত ১৫ এপ্রিল কলকাতার একটি বেসরকারি নার্সিং হোমে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। চিকিৎসা চলছিল আইসিসিইউতে। সেখানে সোমবার বিকেলে মৃত্য হয় প্রশান্তবাবুর। পরিবার সূত্রে খবর করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। কলকাতার নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়। তাঁর দুটি ফুসফুসেই সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে। এর আগে কিডনির অসুখে ভুগছিলেন তিনি।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। বাড়ি ফিরে আসার কিছুদিন পর জ্বরের উপসর্গ দেখা দেয়। তারপরে তার শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। কোভিড উপসর্গ নিয়ে ১৫ই এপ্রিল তার বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে।সেখানে তার সোয়াব টেস্ট করা হয়। রিপোর্ট পজেটিভ আসে । তার অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। গতকাল বিকেলে তার মৃত্যু হয়। তাঁর পরিবারের সদস্য ও তাঁর সঙ্গে যাঁরা কাজ করতেন তাদেরকে আপাতত হোম কোয়ারইন্টাইনে থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে কোভিডে মৃত্যু হয়েছে হাওড়া আদালতের দুই আইনজীবীরও। এরপরেই তড়িঘড়ি কর্মবিরতির সিদ্ধান্ত নিলেন আইনজীবীরা। হাওড়া আদালতের বার অ্যাসোসিয়েশনের বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় বুধবার থেকে দশদিন কাজ বন্ধ রাখা হবে।
করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ছে। সংক্রমণ ও মৃত্যু বাড়ছে। এর প্রভাব পড়েছে হাওড়া আদালতেও। ইতিমধ্যেই দুই আইনজীবীর মৃত্যু হয়েছে। সংক্রমণ রুখতে হাওড়া আদালতে কাজ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল আইনজীবীদের সমস্ত সংগঠন। আগামীকাল থেকে সামনের মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত কাজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। হাওড়া আদালতের ক্রিমিনাল কোর্ট বার লাইব্রেরির সভাপতি সমীর বসু রায়চৌধুরী জানিয়েছেন তিনটি বার অ্যাসোসিয়েশনের যৌথ সিদ্ধান্তকে মান্যতা দিয়ে তাঁরাও আগামীকাল থেকে আদালতের কাজকর্ম করবেন না। তিনি আরও জানান, ইতিমধ্যে দুজন আইনজীবী করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তাই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তারা মুখ্য বিচারবিভাগীয় ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে আবেদন করেছেন যাতে হাওড়া কোর্ট চত্বর যথাযথভাবে স্যানিটাইজ করা হয়।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More