ভ্যাকসিন নিলেও আসেনি মেসেজ, উদ্বেগে হাওড়ার কয়েকশো বাসিন্দা

দ্য ওয়াল ব্যুরো, হাওড়া: ভ্যাকসিন নিয়েছেন। অথচ আসছে না মেসেজ। তাই উদ্বেগে রয়েছেন হাওড়ার শহরের বাসিন্দা একশো জনেরও বেশি ভ্যাকসিন গ্রহীতা। কসবা কাণ্ডের পরেও ঘটেছিল এরকম ঘটনা। ভ্যাকসিন নিলেও আসেনি মেসেজ। তবে বিষয়টি নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই বলে সংশ্লিষ্ট স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার তরফে জাননো হয়েছে।

ইন্ডিয়ান রেডক্রস সোসাইটির হাওড়া শাখার অফিসে ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু হয়েছিল মাস দুয়েক আগে। বিনামূল্যে দেওয়া হচ্ছিল কোভিশিল্ড ও কোভ্যাক্সিন। জেলা স্বাস্থ্য দফতর এই স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার মাধ্যমে মূলত তাঁদেরই ভ্যাকসিন দেওয়ার ব্যবস্থা করেছিল যাঁদের থেকে সংক্রমণ বেশি ছড়াতে পারে। তাছাড়া সাধারণ মানুষদেরও দেওয়া হচ্ছিল ভ্যাকসিন।

কিন্তু অভিযোগ এখান থেকে ভ্যাকসিন নেওয়ার পর মেসেজ আসছে না অনেকের। রুমা সোম নামে এক বধূ জানান, গত সাত জুন তিনি কোভ্যাকসিন নিয়েছেন রেডক্রস সোসাইটি থেকে। স্পট রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন। কিন্তু এতদিন কেটে গেলেও কোনও মেসেজ আসেনি। তিনি বলেন, ‘‘এতদিন অপেক্ষা করেছি মেসেজ চলে আসবে। কিন্তু আসেনি। এখন তাই চিন্তা লাগছে। চারদিকে যা শুনছি, ঠিকঠাক টিকা নেওয়া হল কি না বুঝতে পারছি না।’’

একই সমস্যায় পড়েছেন সুজয় সোম। তিনি জানান, তাঁর বউদি ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন রেডক্রস সোসাইটি থেকে। কিন্তু মেসেজ আসেনি। বারবার যোগাযোগ করেও কোনও লাভ হয়নি। তিনি বলেন, খুব দুশ্চিন্তায় রয়েছেন বৌদি। আদৌ ঠিক ভ্যাকসিন নিয়েছেন নাকি অন্য কোনও সমস্যা হয়েছে কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না। দ্বিতীয় ডোজের সময় হয়ে এলে তার কী হবে তাও বুঝতে পারছেন না।’’

ইন্ডিয়ান রেডক্রস সোসাইটির হাওড়া শাখার সম্পাদক ডঃ সুজয় চক্রবর্তী এই সমস্যার কথা স্বীকার করেছেন। তবে তিনি বলেন, ‘‘এ নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। প্রত্যেকেই সঠিক ভ্যাকসিন পেয়েছেন। এখানে প্রতিদিন প্রায় পাঁচশোর বেশি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হয়েছে। সংখ্যাটা বেশি হওয়ায় হয়ত কোনও টেকনিক্যাল প্রবলেম হয়েছে। তবে যারা মেসেজ পাননি তাঁরা যোগাযোগ করলে সমস্যার সমাধান করে দেওয়া হবে।’’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More