ক্যানিংয়ের যুবতীকে হারানো ব্যাগ ফিরিয়ে দিলেন ট্র্যাফিক সার্জেন্ট, ‘কর্তব্য’ পালন ওসি-র

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অটোতে ব্যাগ ফেলে নেমে গেছিলেন ক্যানিংয়ের যুবতী। কোলে তাঁর একরত্তি শিশু। বাচ্চাকে সামলাতেই ব্যস্ত ছিলেন। কিছু দূর গিয়েই হঠাৎ মনে পড়ে হ্যান্ডব্যাগের কথা। যাতে আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, দামি মোবাইল ফোন, টাকা সহ বেশ কিছু মূল্যবান কাগজ পত্র ছিল। সেটা অটোতেই যে ফেলে এসেছেন! এখন কী হবে? সাতপাঁচ না ভেবে তড়িঘড়ি ট্র্যাফিক কন্ট্রোলের ওসির কাছে যান ফুলজান বিবি নামের ওই মহিলা।

পুরো ঘটনা জানতেই তৎপর হন ক্যানিং ট্র্যাফিক কন্ট্রোলের কর্তব্যরত ওসি দেবব্রত সরকার। ট্র্যাফিক সামলানোর ফাঁকে অভিযোগ পেয়েই কাজ শুরু করেন তিনি। তাঁর সাহায্যে মাত্র ২০ মিনিটের মধ্যেই উদ্ধার হয় সেই হারিয়ে যাওয়া ব্যাগ। ভেতরের জিনিসপত্র সবই অক্ষত ছিল। ক্যানিং থানার মাতলা ব্রীজ সংলগ্ন এলাকায় রবীন্দ্র মূর্তির তলায় ফুলজান বিবির হাতে ব্যাগটি তুলে দেয় ট্রাফিক পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, মঙ্গলবার সকালে উদভ্রান্তের মত এক মহিলা এসে হাজির হন কর্তব্যরত ক্যানিং ট্রাফিক ওসি দেবব্রত সরকারের কাছে। তাঁর নাম ফুলজান বিবি। কাঁদতে কাঁদতে তিনি জানান অটোর মধ্যে ব্যাগ হারিয়ে গেছে। সেই ব্যাগেই রয়েছে তাঁর সর্বস্ব। জানা যায়, বাসন্তীর ভাঙনখালীর খেড়িয়া থেকে অটোয় উঠেছিলেন ফুলজান। নেমেছিলেন বাসন্তীর ডকঘাট এলাকার শিমূলতলা মোড়ে।

তারপর সঙ্গে ব্যাগ নেই বুঝেই ট্র্যাফিক পুলিশের শরণাপন্ন হন। পুলিশে অভিযোগ জানানোর অনেক আগেই অবশ্য অটোটি যাত্রী নামিয়ে দাঁড়িয়েছিল রবীন্দ্র মূর্তির পাদদেশ সংলগ্ন অটো স্ট্যান্ডে। তবে ফুলজানের ব্যাগ সেখানে ছিল না।

ক্যানিং ট্রাফিক ওসি জানতে পারেন, অটোর কোন এক যাত্রীই আবার ব্যাগটি হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছে। এরপর ওসি অতি তৎপরতার সঙ্গে খোঁজ করতে থাকে সেই যাত্রীর। নাগাল না পেয়ে শেষ পর্যন্ত ওই মহিলার ব্যাগে থাকা ফোনে ফোন করেন। দু-চারবার ফোন করার পর ওই অপরিচিত যাত্রী ফোন রিসিভ করে। ফোনে ট্র্যাফিক ওসির পরিচয় শুনে ভয় পেয়ে যায় ওই যাত্রী। ব্যাগ ফেরত দিতে সম্মতি হয় সে।

শেষমেশ ক্যানিং হাসপাতাল মোড় থেকে অক্ষত অবস্থায় সেই ব্যাগ উদ্ধার করে ক্যানিং ট্রাফিক পুলিশ। পুরো ঘটনাটা ২০ মিনিটের মধ্যেই ঘটে যায়। আবার ব্যাগ ফিরে পেয়ে হাসি ফোটে ফুলজানের মুখে। কৃতজ্ঞতায় ভরে ওঠে তাঁর মন। ধন্যবাদ জানান ওসি দেবব্রত সরকারকে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More