৭ বছরে নানা চমক এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসবে, আগ্রহীরা যোগ দিতে পারবেন আগামীকাল

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছয় পেরিয়ে সাত বছরে পা দিল এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসব (Apeejay Bangla Sahitya Utsab) ১০-১২ ডিসেম্বর তিনদিনের এই সাহিত্য উৎসবের প্রথম দুদিন ছিল ভার্চুয়াল। সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে ইতিমধ্যেই লাইভ সে অনুষ্ঠানের সাক্ষী হয়েছেন বাংলার সাহিত্যপ্রেমী মানুষেরা। তবে লাইভের পাশাপাশি এবার সরাসরি যোগ দেওয়া যাবে তৃতীয় দিন, অর্থাৎ আগামীকালের অনুষ্ঠানে। পার্কস্ট্রিটের সুবিখ্যাত অক্সফোর্ড বুকস্টোরে হবে তৃতীয়দিনের সাহিত্য সম্মেলন। আগ্রহী দর্শকেরা কোভিড বিধি মেনে অনায়াসে অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারবেন, জানালেন উৎসবের অ্যাডভাইজার রূপা মজুমদার।বাংলার সাহিত্যক্ষেত্রে এপিজে বাংলা সাহিত্য উৎসব পরিচিত নাম। এই উৎসব শুরু হয়েছিল ২০১৫ সালে অক্সফোর্ড বুকস্টোরের সঙ্গে পত্রভারতীর সহযোগিতায়। এটিই ভারতের প্রথম বাংলা সাহিত্য উৎসব। বাংলা সাহিত্য পড়ার প্রতি মানুষকে আরও উৎসাহিত করা এবং বাংলার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছে দেওয়াই এই ফেস্টিভ্যালের মূল উদ্দেশ্য।এবারের বাংলা সাহিত্য উৎসবে ১৩ টির মতো সেশন বা আড্ডার পরিকল্পনা করা হয়েছে। যেখানে অডিয়ো বুক, বাংলা সাহিত্য, গ্রাফিক্স উপন্যাসের মতো বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে। কোভিডের ক্ষত পার হয়ে এই উৎসবে স্মরণ করা হচ্ছে শঙ্খ ঘোষ, বুদ্ধদেব গুহ এবং অনীশ দেবের মতো বাংলার প্রয়াত স্বনামধন্য সাহিত্যিকদের। উৎসবে অংশ নিয়েছেন বাংলা সাহিত্যের পরিচিত বিশিষ্টজনেরা। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়, পবিত্র সরকার, রুদ্রপ্রসাদ সেনগুপ্ত, নৃসিংহ প্রসাদ ভাদুড়ি, বাণী বসু, শুভপ্রসন্ন, কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, সুবোধ সরকার, প্রচেত গুপ্ত, প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, ইন্দ্রাণী চক্রবর্তীর মতো খ্যাতনামা ব্যক্তিত্ব। সাহিত্যপাঠ ও আলোচনার পাশাপাশি অনুগল্প ও অনুকবিতার বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হবে এইদিন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.