গুরু পূর্ণিমায় শুভেচ্ছাবার্তা প্রধানমন্ত্রীর, জানুন হিন্দু ও বৌদ্ধ মতে কী মাহাত্ম্য এই তিথির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আজ গুরু পূর্ণিমা। শিক্ষক ও গুরুদের শ্রদ্ধা জানানোর জন্য আলাদা দিন দরকার হয় না ঠিকই, তবু এই বিশেষ পূর্ণিমা তাঁদের জন্যেই সমর্পিত। হিন্দু ক্যালেন্ডার অনুযায়ী আষাঢ় মাসে যে পূর্ণিমা থাকে, তাতেই পালিত হয় গুরু পূর্ণিমা। বৌদ্ধ মতেও এই তিথির তাৎপর্য রয়েছে।

কী মাহাত্ম্য এই গুরু পূর্ণিমার?

আষাঢ় মাসের এই পূর্ণিমা তিথিতে বেদব্যাসের জন্ম হয়েছিল। বেদকে চার ভাগে ভাগ করেছিলেন তিনি। তাঁকেই ১৮টি হিন্দু পুরাণের রচয়িতা বলা হয়। পরে তিনিই লেখেন মহাভারত মহাকাব্য। কৃষ্ণ দ্বৈপায়ন বেদব্যাসের জন্মতিথিকেই পালন করা হয় গুরু পূর্ণিমা বা ব্যাস পূর্ণিমা হিসেবে।

এছাড়া হিন্দু পুরাণে বলা আছে, এই তিথিতেই গুরু হিসাবে শিষ্যদের মহাজ্ঞান দান করেন দেবাদিদেব মহাদেব। অত্রি, বশিষ্ঠ, পুলহ, অঙ্গিরা, পুলস্থ, মরীচি, ক্রতু এই সপ্তর্ষি ছিলেন মহাদেবের প্রথম শিষ্য।

হিন্দু মতের পাশাপাশি বৌদ্ধ ধর্মমতেও গুরু পূর্ণিমার তাৎপর্য অশেষ। বলা হয় এই দিনেই বোধিজ্ঞান লাভের পর ভগবান বুদ্ধ জ্ঞান বিতরণ করেন তাঁর একান্ত ৫ জন শিষ্যের মাঝে। তারপর বৌদ্ধ ধর্ম দিগ্বিদিকে ছড়িয়ে পড়ে।

গুরু পূর্ণিমার এই পবিত্র তিথিতে দেশবাসীর উদ্দেশে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইটে তিনি লিখেছেন, গুরু পূর্ণিমার এই পূণ্য লগ্নে দেশবাসীকে আমার হার্দিক শুভকামনা জানাই। দেশকে উদ্দেশ্য করে গুরু পূর্ণিমার ভাষণও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ত্যাগের সমর্পিত প্রাণ ভগবান বুদ্ধ যখন কথা বলতেন, তখন তাঁর মুখ থেকে কেবল কিছু শব্দ বের হত না। ধর্মচক্রের প্রবর্তন হত। তখন তিনি কেবল পাঁচজন শিষ্যকে উপদেশ দিয়েছিলেন। কিন্তু আজ সারা দুনিয়া বুদ্ধর কথায় আস্থা রাখে।

গুরু পূর্ণিমার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের বিরোধী দলনেতা তথা বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীও। তিনি টুইটে লিখেছেন, গুরু পূর্ণিমায় আমি পবিত্র গেরুয়া পতাকার সামনে মাথা নত করছি।

এই দিন ছাত্রছাত্রীরা গুরু বা শিক্ষকদের উদ্দেশে তাঁদের শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। শুধু পুঁথিগত শিক্ষা নয়, মূল্যবোধ ও জ্ঞানের উন্মেষ ঘটান শিক্ষক। তাই ছাত্রজীবনে শিক্ষকের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষকের তৎপরতায় ভবিষ্যত গঠন হয় ছাত্রের। বিভিন্ন স্কুল কলেজে গুরু পূর্ণিমা পালন করতে দেখা যায়।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More