করোনার নতুন স্ট্রেনের ভয়ে কর্নাটকেও নাইট কার্ফু

দ্য ওয়াল ব্যুরো : মহারাষ্ট্রের পরে কর্নাটক। ব্রিটেনে করোনাভাইরাসের নতুন স্ট্রেন ছড়িয়ে পড়ার পরে প্রথমে নাইট কার্ফু জারি করেছিল মহারাষ্ট্র। এবার কর্নাটকও হাঁটল সেই পথে। বুধবার জানানো হয়েছে, আগামী ২ জানুয়ারি পর্যন্ত কর্নাটকের প্রতিটি শহরে রাত ১০ টা থেকে সকাল ছ’টা পর্যন্ত কার্ফু জারি থাকবে। মহারাষ্ট্রে অবশ্য নাইট কার্ফুর মেয়াদ ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত।

গত শনিবার ব্রিটেনের হেলথ সেক্রেটারি ম্যাট হ্যানকক জানিয়েছেন, ইংল্যান্ডের দক্ষিণে এই নতুন প্রজাতির ভাইরাসের অস্তিত্ব খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এই নতুন প্রজাতি থেকে ফের সংক্রমণ ছড়াচ্ছে এবং তার গতি আগের থেকেও বেশি। ব্রিটেনে এই মাসে আক্রান্তের সংখ্যা ও হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা বাড়তে শুরু করেছে। এই কারণে রবিবার থেকে ফের লকডাউনও জারি হয়েছে বহু জায়গায়।

ব্রিটিশ সরকারের তরফে একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “এই নতুন প্রজাতির মাধ্যমে সংক্রমণ খুব দ্রুত ছড়াচ্ছে। প্রাথমিক তথ্য ও দক্ষিণ-পূর্বে দ্রুত আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় বিশেষজ্ঞদের পরামর্শে সরকার জানাচ্ছে এই নতুন প্রজাতি আরও বেশি ক্ষতিকারক।” বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, “আমরা ইতিমধ্যেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে এই বিষয়ে জানিয়েছি। যদিও আমাদের কাছে এখনও এমন কোনও তথ্য নেই যাতে আমরা বলতে পারি এই নতুন প্রজাতির সংক্রমণে মৃত্যুর হারও বেশি হচ্ছে। এর ফলে চিকিৎসা পরিষেবার উপর প্রভাব পড়েছে। আমরা যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করছি।”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভাইরাসের এই নতুন স্ট্রেনটি আগের থেকেও ৭০ শতাংশ দ্রুততর গতিতে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে বলে মনে করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে স্বাভাবিক ভাবেই ঝুঁকি নেওয়ার অবকাশ নেই। ফলে সামনেই যে বড়দিনের উদযাপনের প্রস্তুতি চলছিল, তাতেও নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে সরকার।

ভারত সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্রিটেন থেকে আসা কোনও বিমানকেই আর এদেশে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

অসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রক সূত্রে খবর, বুধবার থেকে চালু হচ্ছে এই নিষেধাজ্ঞা। ব্রিটেন থেকে ভারতে আসার সমস্ত বিমান বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। তার আগে যে যাত্রীরা ব্রিটেন থেকে ভারতে আসবেন তাঁদের আরটি-পিসিআর টেস্ট করিয়ে তবেই ঢুকতে দেওয়া হবে। যদি করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসে তাহলে কোনও কোভিড সেন্টারে আইসোলেশনে থাকতে হবে। ভাইরাল লোড কম হলে হোম-আইসোলেশনেও সাত দিন থাকা যেতে পারে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More