শনিবার, ফেব্রুয়ারি ১৬

আমার ঠাকুমা ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে মোদীর তুলনা কেন? অসন্তুষ্ট রাহুল

দ্য ওয়াল ব্যুরো : রাফায়েল চুক্তি থেকে কৃষি, কর্মসংস্থান, রোজগার নিশ্চয়তা প্রকল্প, মঙ্গলবার একগুচ্ছ প্রশ্নের জবাব দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। একসময় তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, অনেকে তো প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর তুলনা করছেন। আপনি কী বলবেন? এই প্রশ্ন শুনে দৃশ্যতই অসন্তুষ্ট রাহুল বলেন, আমার ঠাকুমার সঙ্গে মোদীর তুলনাই হয় না। আমার ঠাকুমা দেশের জনগণের প্রতি ভালোবাসা থেকেই যাবতীয় সিদ্ধান্ত নিতেন। তিনি দেশকে ঐক্যবদ্ধ করতে চাইতেন। মোদী সব সিদ্ধান্ত নেন ঘৃণা থেকে। তিনি বিভেদকামী।

প্রথমে রাহুলকে প্রশ্ন করা হয় সাম্প্রতিক বাজেট সম্পর্কে। তিনি বলেন, বাজেটে যেভাবে কৃষকদের দৈনিক ১৭ টাকা করে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে, তা অপমানজনক। সরকার ভেবেই পাচ্ছে না কী করবে। মোদীর বাজেটে কৃষকদের যে উপকার হবে, তার চেয়ে অনেক বেশি উপকার হবে কংগ্রেস শাসিত রাজ্যগুলি কৃষিঋণ মকুব করায়।

ঋণ মকুব নিয়ে মোদীকে কটাক্ষ করেন রাহুল। তাঁর কথায়, নরেন্দ্র মোদী তাঁর ২০-২৫ জন বন্ধুর জন্য ৩.৫ লক্ষ কোটি টাকা ঋণ মকুব করে দিয়েছেন। কেউ যদি অনিল অম্বানির ঋণ মকুব করে দিতে পারে, কৃষকদের ঋণ মকুব করবে না কেন?

রাহুলের দাবি, নরেন্দ্র মোদী কৃষকদের বোঝা বলে মনে করেন। আমরা তাঁদের সম্পদ বলে মনে করি। আমি মনে করি দেশে দ্বিতীয় সবুজ বিপ্লব হওয়া সম্ভব। সেজন্য পরিকাঠামো তৈরি করতে হবে, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণের কারখানা বানাতে হবে, এককথায় কৃষকদের পাশে সবরকমভাবে দাঁড়াতে হবে।

কর্মসংস্থান বাড়ানোর জন্য রাহুল নির্ভর করেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের ওপর। তাঁর কথায়, আপনি আশা করতে পারেন না মাত্র ১৫-২০ জন বৃহৎ শিল্পপতিই সকলকে চাকরি দেবেন। চাকরির জন্য নির্ভর করতে হবে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের ওপরে।

রাহুলের প্রশ্ন, ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের মধ্যে কেউ কি সরাসরি অর্থমন্ত্রী বা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে পারেন? অনিল অম্বানি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফ্রান্সে গিয়েছিলেন। কোনও ক্ষুদ্র বা মাঝারি ব্যবসায়ী কি তা পারবেন? প্রধানমন্ত্রী কি তাঁদের কাউকে মেহুল্ভাই, নীরবভাই বলে সম্বোধন করবেন? এর উত্তর হল, না।

বাজেটের ঠিক আগেই রাহুল ঘোষণা করেছিলেন, তাঁরা ক্ষমতায় এলে ন্যূনতম রোজগার নিশ্চয়তা প্রকল্প চালু করবেন। অনেকের ধারণা, বাজেটে মোদী জনমোহিনী ঘোষণা করতে চলেছেন আন্দাজ করেই রাহুল আগেভাগে রোজগার গ্যারান্টি স্কিমের কথা বলেছিলেন। এদিন ওই প্রকল্প নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এটা এক বৈপ্লবিক ধারণা। আমরা দরিদ্রতম মানুষকে রক্ষা করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। ওই প্রকল্প ঘোষণার আগে আমরা ছ’মাস ধরে হোমওয়ার্ক করেছি।

এক্ষেত্রেও মোদীকে কটাক্ষ করে রাহুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী স্বীকারই করেন না ভারতে এখন সংকট চলছে। বাস্তবে দেশে কর্মসংস্থানের ব্যাপক সমস্যা রয়েছে, কৃষিক্ষেত্রের অবস্থা খারাপ, যুবকরা হতাশ। তারা ভাবছে তাদের ভবিষ্যৎ অন্ধকার। কংগ্রেস ক্ষমতায় এলে তাদের ক্রোধ প্রশমিত করবে। ভবিষ্যতের দিশা দেখাবে।

Shares

Comments are closed.