রাজনীতিতে কেউ সাধু-সন্ত নেই, কংগ্রেস-এনসিপির সমর্থনে তাদের সরকার গড়ার সম্ভাবনা নিয়ে বলল শিবসেনা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিজেপির উপরে ক্রমেই চাপ বাড়াচ্ছে শিবসেনা। মহারাষ্ট্রে সরকার গড়া নিয়ে এখনও তাঁদের সঙ্গে বিজেপির কোনও কথা হয়নি বলে জানিয়েছেন শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। ২৮৮ আসনের মহারাষ্ট্র বিধানসভায় বিজেপি তাদের মুখ্যমন্ত্রিত্ব না ছাড়লে কি উপমুখ্যমন্ত্রী পদ নিয়ে তারা সন্তুষ্ট থাকবে? একটি ইংরেজি চ্যানেলের করা এই প্রশ্নের উত্তরে বিজেপিকে ঘুরিয়ে বিজেপিকে সতর্ক করে দিল শিবসেনা।

শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত বলেন, বিজেপির সঙ্গে তাঁদের জোট রয়েছে। পরে তিনি বলেন রাজনীতিতে কেউ সাধুসন্ত নেই। তাই ‘অনিচ্ছাসত্ত্বেও’ কংগ্রেস-এনসিপির সমর্থন নিয়ে সরকার গড়ার সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দেননি রাউত। তিনি জানিয়েছেন, এব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন দলের প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। তারা চাইছে, সরকারের অর্ধেক মেয়াদ তাদের মুখ্যমন্ত্রিত্ব দিতে হবে, এব্যাপারে তারা বিজেপির কাছ থেকে লিখিত প্রতিশ্রুতি চায়।

এখনও পর্যন্ত অমিত শাহ বা অন্য কোনও শীর্ষস্থানীয় বিজেপি নেতা এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি। তবে শোনা যাচ্ছে, কোনও ভাবেই ছোটশরিক শিবসেনাকে মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়বে না বিজেপি। তারা চাইছে, পুরো মেয়াদ মুখ্যমন্ত্রী থাকুন দেবেন্দ্র ফড়ণবীশ। যদিও শিবসেনা চাইছে অন্তত অর্ধেক মেয়াদ মুখ্যমন্ত্রী হবেন উদ্ধব ঠাকরের ছেলে আদিত্য ঠাকরে।

মুখ্যমন্ত্রী পদের জন্য আগেই দেবেন্দ্র ফড়ণবীশের নাম প্রস্তাব করে রেখেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। কোনও ভাবেই ফড়ণবীশকে মেনে নিচ্ছেন না শিবসেনার প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। এ ক্ষেত্রে ২০১৪ সালের মতো রাজ্যের বৃহত্তম দল হিসাবে সংখ্যালঘু সরকার গড়তে পারেন দেবেন্দ্র ফড়ণবীশ। ২০১৪ সালে ১২২টি আসন পেয়ে সংখ্যালঘু সরকার গড়েছিলেন ফড়ণবীশ। তখন তাঁর সরকারকে সমর্থন করেছিল শিবসেনা। সেবার শিবসেনা পেয়েছিল ৬৩টি আসন, এবার তারা পেয়েছে ৫৬টি। এখন সরকার গড়ার জন্য শরদ পওয়ারের কাছে নিঃশর্ত সমর্থনও চাইতে পারেন দেবেন্দ্র ফড়ণবীশ।

বিধানসভা নির্বাচনে মহারাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি লাভবান হয়েছে শরদ পওয়ারের ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টি বা এনসিপি। তারা এখন রাজ্যের তৃতীয় বৃহত্তম দল। পওয়ার অবশ্য মনে করেন, শিবসেনা ন্যায্য দাবিই করছে। তাঁর এই কথা শুনেই তেড়েফুঁড়ে দরকষাকষি করতে থাকেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে। তারা বার বার সংবাদমাধ্যমে নানা বিবৃতি দিলেও, মহারাষ্ট্রে সরকার গড়া নিয়ে এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য করেনি বিজেপি। তবে তারা চুপ করে বসে জল মাপছে নাকি তলে তলে অন্য হিসাব কষছে তা নিয়েও শুরু হয়েছে জল্পনা।

মহারাষ্ট্রে ভোটের যা ফল, তাতে শিবসেনার হাত ছেড়ে বিজেপিকে সরকার গড়তে হলে শরদ পওয়ারের হাত ধরা ছাড়া অন্য উপায় নেই বললেই চলে।

পড়ুন ‘দ্য ওয়াল’ পুজো ম্যাগাজিন ২০১৯–এ প্রকাশিত গল্প: শয্যা উত্তোলন

https://www.thewall.in/pujomagazine2019/%e0%a6%b6%e0%a6%af%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be-%e0%a6%89%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a7%8b%e0%a6%b2%e0%a6%a8/

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More