বাংলার হেঁশেল- কেক তৈরির অ আ ক খ

শমিতা হালদার

কেকের নাম শুনলে শীত হোক, বা গ্রীষ্ম জিভে জল আসে সকলের। অথচ কেক তৈরির কথা ভাবলেই শুরু হয় বুক দুরুদুরু। যতটা কঠিন ভাবছেন, কেক তৈরি অতটাও কঠিন নয়। সামনেই বর্ষা, ঝমাঝম বৃষ্টির দিনে এককাপ কফি আর ঘরে বানানো একটুকরো ফ্রেসলি বেকড কেক- কেমন জমে যাবে বলুন তো! আসুন আজ তাহলে শিখে নেওয়া যাক অল্প কথায় কেক তৈরির একেবারে গোড়ার নিয়মগুলো। যার পর আর দোকানে ছুটতে হবে না৷ নিজেই বাড়িতে বসে খুব সহজেই বানিয়ে ফেলতে পারবেন নিজের পছন্দের আলাদা আলাদা ফ্লেভারের কেক

উপকরণ
ময়দা ১ কাপ
চিনি ১/২ কাপ
ডিম ২-৩ টি
বেকিং পাউডার ১ চামচ
এসেন্স ১/২ চামচ
বাটার বা তেল ১/২ কাপ

প্রণালী

চায়ের রেগুলার কাপের এক কাপ ময়দা, ১ চা চামচ বেকিং পাউডার আটা চালুনিতে চেলে রাখুন। ইলেকট্রিক হ্যান্ড মিক্সার ( ব্লেন্ডার নয়) থাকলে তাতে, নাহলে মিক্সারের মাঝারি জারে দুটো ডিম, অর্ধেক কাপ চিনি, অর্ধেক কাপ তেল বা মাখন ঠিক ২ মিনিট ঘুরিয়ে নিন। এতে ৫-৬ ড্রপ ভ্যানিলা ফ্লেভার মিশিয়ে নেবেন।
এবার একটা পাত্রে ডিমের মিক্স ঢেলে ময়দাটা অল্প অল্প করে ঐ মিশ্রণে হাল্কা হাতে মেশান। ইংরেজির 8 লিখবেন। ২৫-৩০ বার ম্যাক্সিমাম। বেশি মেশাবেন না। মোটামুটি ময়দা মিশে গেলেই কাজ শেষ। কাজু কিসমিস ইত্যাদি ইচ্ছেমতো এতে মিক্স করে নেবেন।
ব্যাস, ব্যাটার রেডি। এবার কড়াই গ্যাসে বসিয়ে ২০০ গ্রাম মতো নুন ঢেলে দিন। কড়াইয়ের ভিতরে নুনের উপর একটা বাসনের স্ট্যান্ড রাখুন। গ্যাস হাই ফ্লেমে ৫ মিনিট গরম হবে। তারপর খুব সাবধানে কেক-টিন ভিতরে রাখুন আর কড়াই ঢেকে দিন। এবার গ্যাস সিমে বসিয়ে ৩০-৪০ মিনিট রাখুন।

মাইক্রোওয়েভে কেক করতে হলে ওভেন কনভেকশন মোডে ১৮০ ডিগ্রিতে প্রি-হিট করুন ৫ মিনিট। এরপর ছোট র‍্যাকের ওপর কেক টিন বসিয়ে কনভেকশনে সহজেই বেক করে নিতে পারবেন।
কেক রেডি হয়ে গেলেও কড়াই বা অভেনে ১৫ মিনিট থাকবে, চট করে বের করে নেবেন না।
ঠান্ডা হলে কাটবেন, নাহলে কেক ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
কেক বেসিক ঠিকঠাক হলে এতে নানা ফ্লেভার যোগ করতে পারেন। তবে কেক বানানো একেবারেই কঠিন নয়। শুধু ঠিকঠাক স্টেপ ফলো করলেই হবে।

শমিতা হালদার, গুরগাঁও-এর বাসিন্দা, সাহিত্য নিয়ে পড়াশোনা করেও পেশায় একজন অনলাইন কুকিং ট্রেনার এবং হোম শেফ। যুক্ত আছেন রান্না সংক্রান্ত একাধিক ব্লগের সঙ্গে। বর্তমানে সারা দেশে এবং পৃথিবীর নানান প্রান্তে ছড়িয়ে আছে তাঁর ছাত্রছাত্রী। রান্না ছাড়াও দুস্থ বাচ্চা এবং মহিলাদের নিয়ে কাজ করেন। কোভিড আবহে যুক্ত রয়েছেন সমাজকল্যাণমূলক নানা কাজকর্মের সঙ্গে। 

বাংলার হেঁশেল- গরমে ফলের তৈরি কাঠি আইসক্রিম

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More