পাকিস্তানের যা জিডিপি ভারতের আর্থিক প্যাকেজ প্রায় তত, ইমরান খানের অর্থসাহায্য প্রস্তাব সপাটে নাকচ দিল্লির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সম্প্রতি করোনা মহামারী মোকাবিলায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রস্তাব দিয়েছেন, প্রয়োজনে তাঁরা ভারতকে টাকা দিয়ে সাহায্য করবেন। পাল্টা জবাব হিসেবে নয়াদিল্লি জানিয়ে দিল, পাকিস্তানের গোটা দেশের যা জিডিপি, তা এ দেশের ‘করোনা রিলিফ প্যাকেজ’-এর সমান। ফলে পাকিস্তানের সাহায্যের কোনও দরকারই নেই ভারতের।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, পাকিস্তান নিজে ঋণের অঙ্কে জর্জরিত। তার অর্থনীতি তলানিতে। করোনা পরিস্থিতিও ক্রমেই নাগালের বাইরে। এই অবস্থায় পড়শি দেশকে টাকা দিয়ে সাহায্য করতে চাওয়াটা নেহাতই বেমানান। তাই গতকালই এ দেশের বিদেশ মন্ত্রক একটি বিবৃতি দিয়ে জানায়, “পাকিস্তানের মনে রাখা উচিত, যে ওদের ঋণের সমস্যা রয়েছে। ওদের জিডিপি-র ৯০ শতাংশ ঋণে জর্জরিত। আর আমাদের দেশের রিলিফ প্যাকেজ প্রায় পাকিস্তানের জিডিপি-র সমান।”

পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বৃহস্পতিবার পাক সংবাদমাধ্যমের একটি খবরের লিঙ্ক শেয়ার করে টুইট করেন। সেখানে তিনি ওই খবরকে ইঙ্গিত করেই পরপর টুইট করে লেখেন, “৮৪ শতাংশ ভারতীয় পরিবারের মাসিক আয় কমে এসেছে লকডাউনের পর থেকে। ৩৪ শতাংশ ভারতীয় পরিবার এক সপ্তাহের বেশি খরচ চালাতে পারবে না, বাইরের কোনও রকম সাহায্য ছাড়া। আমি সেই সাহায্যের প্রস্তাব দিচ্ছি। আমাদের ক্যাশ ট্রান্সফার প্রোগ্রাম বিশ্বজুড়ে প্রশংসিত হয়েছে। সেই সাহায্য নিক ভারত। পাকিস্তানের সরকার ৯ সপ্তাহে ১০ মিলিয়ন পরিবারকে স্বচ্ছতার সঙ্গে অর্থ দান করেছে।”

এই টুইটের জবাবাই পাকিস্তানকে তার জিডিপি-র অধোগতির কথা স্মরণ করিয়ে দেয় ভারতের বিদেশ মন্ত্রক।
পাকিস্তানের আর্থিক পরিস্থিতি ও করোনার তীব্রতাই যে শুধু সঙ্কটে তাই নয়, সে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতিতেও বড় সমস্যা ঘটতে পারে। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ইতিমধ্যেই ইঙ্গিত করেছে, সেনাশাসন জারি হতে চলেছে সে দেশে। এই পরিস্থিতিতে নিজের দেশের উন্নয়নই পাকিস্তানের লক্ষ্য হওয়া উচিত বলে মনে করছেন অনেকে।

বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব তাই বলেন, “দেশের বাইরে ক্যাশ ট্রান্সফারের চেয়ে নিজের দেশের লোককে টাকা দেওয়া এখন বেশি জরুরি। ইমরান খানের একদল ভাল উপদেষ্টা দরকার, যাঁরা সঠিক তথ্য ও পরামর্শ দিতে পারবে তাঁকে।”

করোনা মহামারী মোকাবিলায় গত মাসেই ২০ লক্ষ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই অঙ্কের কথা মাথায় রেখেই তা পাকিস্তানের মোট জিডিপির প্রায় সমান বলে উল্লেখ করেছে বিদেশ মন্ত্রক।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More