বন্যায় প্লাবিত বাংলাদেশের বিস্তীর্ণ অঞ্চল, দুর্গত ১০ লক্ষের বেশি

দ্য ওয়াল ব্যুরো : বাংলাদেশের ২০ টি জেলার অন্তত দুই ডজন জায়গায় নদীতে জলস্তর বাড়ছে হু হু করে। দেশের উত্তর, উত্তর-পূর্ব ও মধ্যভাগের বিস্তীর্ণ অঞ্চল প্লাবিত হয়েছে মঙ্গলবার। ১০ লক্ষেরও বেশি গ্রামবাসী তাঁদের গবাদি পশুগুলোকে নিয়ে আশ্রয় নিয়েছেন উঁচু জায়গায়। বাংলাদেশের ওয়াটার ডেভলপমেন্ট বোর্ডের এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার আরিফুজ্জামান ভুঁইয়া জানিয়েছেন, বন্যা পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপ হচ্ছে। সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হল, চলতি বছরে বন্যা হচ্ছে দীর্ঘ সময় ধরে।

বাংলাদেশে বর্ষার বৃষ্টি হয় জুন থেকে অক্টোবর মাস পর্যন্ত। প্রায় প্রতিবছরই সেখানে বন্যা হয়। কিন্তু আরিফুজ্জামান ভুঁইয়া জানিয়েছেন, এবছর ভারতে বৃষ্টি হওয়ার ফলে অনেক নদী ফুলেফেঁপে উঠেছে। তার ফলেই বন্যা হয়েছে বাংলাদেশে। বাংলাদেশে মোট ২৩০ টি নদী আছে। তার মধ্যে ৫৩ টি নদী বয়ে গিয়েছে ভারতের ওপর দিয়েও।

গত জুন মাসের শেষ থেকে বাংলাদেশে শুরু হয়েছিল বন্যা। মাঝে অল্পদিনের জন্য বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছিল। পরে ফের অবস্থা খারাপ হয়েছে। বাংলাদেশে বন্যায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলির মধ্যে রয়েছে কুরিগ্রাম। সেখানে বৈদ্যানন্দ ফাউন্ডেশন নামে এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মিজানুর রহমান সৈকত জানিয়েছেন, গত সপ্তাহের শেষেই হাজার হাজার মানুষ তাঁদের জিনিসপত্র নিয়ে উঁচু জায়গায় আশ্রয় নিয়েছেন। গত কয়েক সপ্তাহে কুরিগ্রামে সরকারি ত্রাণ পেয়েছেন ১ লক্ষ ৩৫ হাজার মানুষ। গত দু’দিনে অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে। জলমগ্ন হয়েছে আরও অনেক গ্রাম।

ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব রেড ক্রস ও রেড ক্রিসেন্ট সোমবার এক বিবৃতিতে বলেছে, বাংলাদেশে ১০ লক্ষের বেশি মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। পরিস্থিতি খারাপ হতে শুরু করেছে গত সপ্তাহের শেষ থেকে। ওয়াটার ডেভলপমেন্ট বোর্ড বলেছে, আগামী দিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে।

রংপুর জেলার ত্রাণ ও পুনর্বাসন দফতরের অফিসার এ টি এম আখতারুজ্জামান বলেন, তিস্তা নদী প্লাবিত হয়ে ওই জেলায় ৫০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তাঁর কথায়, “ভারত থেকে নদীগুলি বিপুল পরিমাণে জলরাশি বয়ে নিয়ে আসছে। এখানেও বৃষ্টি হচ্ছে মুষলধারে। দু’য়ে মিলে পরিস্থিতি খারাপ হয়েছে। আমরা ইতিমধে ৩০০ টন চাল, গরুর খাদ্য ও শিশুখাদ্য বিলি করেছি।”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More