ঘুমিয়ে ঘুমিয়ে হেঁটে বিপর্যয়ের দিকে এগোচ্ছে পাকিস্তান, ইমরানকে তোপ বিলাওয়ালের

শেষ পাওয়া হিসেবে পাকিস্তানে ৯৩ জন করোনা আক্রান্ত মারা গিয়েছেন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার পেরিয়েছে।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ে নাজেহাল অবস্থা ইমরান খানের। দেশে সংক্রমণ ঠেকাতে ব্যর্থ সরকার চো‌খের সামনে দেখছে বেড়ে চলা আক্রান্তের সংখ্যা। সেই সঙ্গে মৃত্যু। এই পরিস্থিতিতে দেশীয় রাজনীতিতেও চাপে ইমরান খান। পাক প্রধানমন্ত্রীর সমালোচনায় সরব হয়েছেন বিরোধী দলনেতা বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি। বললেন, করোনা বিপর্যয়ের মধ্যে ঘুমিয়ে রয়েছে সরকার। ভয়ঙ্কর পরিণতির দিকে হেঁটে চলেছে দেশ।

শেষ পাওয়া হিসেবে পাকিস্তানে ৯৩ জন করোনা আক্রান্ত মারা গিয়েছেন। মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার পেরিয়েছে। পাকিস্তানের মতো দরিদ্র দেশে এই ভাইরাসের সংক্রমণ মারাত্মক চেহারা নিতে পারে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। ২১ কোটি জনসংখ্যার দেশে এখনই যা আক্রান্তের সংখ্যা তা বিপজ্জনক। পাকিস্তানের বিভিন্ন জায়গায় প্রচুর মানুষ এক জায়গায় বসবাস করেন। ঘনবসতির কারণে করোনার প্রকোপ যে কোনও সময়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি করতে পারে।

পাকিস্তান পিপিলস পার্টির প্রধান বিলাওয়াল বলেন, এভাবে চললে দেশে মৃত্যু সংখ্যা পশ্চিমী দেশগুলির মতোই দাঁড়াবে। কারণ, পাকিস্তানে ইতিমধ্যেই, হাসপাতালগুলির বেহাল অবস্থা। অথচ সরকার এখনও ঘুমোচ্ছে বলে অভিযোগ পাকিস্তানের বিরোধী নেতা তথা প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো ও প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারির ছেলে বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি।

তিনি জানিয়েছেন, কোভিড-১৯ সংক্রমণের মোকাবিলা হিসেবে শুধুমাত্র লকডাউনের উপরেই ভরসা রাখছে পাক প্রশাসন। স্বাস্থ্য পরিকাঠামোর উন্নতি ঘটাতে সেই খাতে কোনও অর্থ বরাদ্দ করা হয়নি। তেমন কোনও ইচ্ছাই যেন নেই বর্তমান শাসক দলের। এর ফল হবে মারাত্মক।

বিলাওয়াল বলেছেন, বিপর্যয়ের শুরু থেকেই সরকারের পশ্রে মিথ্যে প্রচার করা হচ্ছে। বিজ্ঞান ও বাস্তব তথ্যকে অস্বীকার করার চেষ্টা চলছে। আন্তর্জাতিক দুনিয়ায় কী ঘটে চলেছে, সেদিকে নজর না দেওয়ার ফলে সময় থাকতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে ব্যর্থ হয়েছি আমরা।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান অর্থনৈতিক দুরবস্থা শুরু হওয়ার আশঙ্কায় দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষণা করেননি। এর জন্য অনেক সমালোচনা সহ্য করতে হয়েছে তাঁকে। বিভিন্ন প্রদেশ অবশ্য নিজেদের উদ্যোগে লকডাউন করেছে। কিন্তু, তাতে অর্থনীতি মার খাওয়ায় ইতিমধ্যেই পাক সরকার নিষেধাজ্ঞা শিথিল করতে প্রদেশগুলির ওপর চাপ সৃষ্টি করছে। এরও নিন্দা করেছেন বিলাওয়াল। তিনি জানান, করোনার সংক্রমণ আটকাতে গোটা পাকিস্তানে আরও কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের সুপারিশ করেছেন প্রাদেশিক স্বাস্থ্য উপদেষ্টা, শিক্ষাবিদ ও বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু তাতে কান দেয়নি সরকার।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More