‘কাল সন্ধেয় হলদিয়ায় থাকব’, বাংলায় টুইট প্রধানমন্ত্রীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রবিবাসরীয় সন্ধ্যায় হলদিয়ায় একাধিক সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তার আগে হলদিয়াতেই তাঁর রাজনৈতিক সভাও রয়েছে। এ বার বিধানসভা ভোটের আগে রবিবারের সভাই হতে চলেছে মোদীর প্রথম প্রচার সভা।

তার আগে শনিবার সন্ধ্যায় বাংলায় টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী। তাতে তিনি লিখেছেন,“আগামীকাল সন্ধ্যায়, আমি পশ্চিমবঙ্গের হলদিয়ায় থাকব। সেখানে একটি অনুষ্ঠানে, বিপিসিএল নির্মিত এলপিজি আমদানি টার্মিনালটি জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করব। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী উর্জা গঙ্গা প্রকল্পের অন্তর্গত ধোবি-দুর্গাপুর প্রাকৃতিক গ্যাস পাইপলাইন বিভাগ জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করব।”

ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড এলপিজি ইমপোর্ট টার্মিনালটি তৈরি করেছে। ১১০০ কোটি টাকা খরচ করে তৈরি এই টার্মিনালের বছরে ১০ লক্ষ মেট্রিক টন রান্নার গ্যাস সরবরাহ করার ক্ষমতা রয়েছে। পশ্চিমবঙ্গ এবং পূর্ব ও উত্তরপূর্ব ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে ক্রমবর্ধমান এলপিজি-র চাহিদা মেটাতে এবং প্রত্যেক বাড়িতে স্বচ্ছ রান্নার গ্যাস সরবরাহের যে উদ্যোগ সরকার নিয়েছে তা এর ফলে বাস্তবায়িত হবে বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়।

প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়ের তরফে শনিবার আরও বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ধোবি-দুর্গাপুর প্রাকৃতিক গ্যাস পাইপ লাইন সেকশন জাতির উদ্দেশে উৎর্সগ করবেন। ৩৪৮ কিলোমিটার দীর্ঘ এই পাইপ লাইন প্রধানমন্ত্রী উর্জা গঙ্গা প্রকল্পের অন্তর্ভুক্ত। এক দেশ এক গ্যাস গ্রিড প্রকল্পের বাস্তবায়নে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা খরচ করে তৈরি এই পাইপ লাইন দিয়ে দুর্গাপুরের ম্যাট্রিক্স সার কারখানায় গ্যাস সরবরাহ করা ছাড়াও ঝাড়খন্ডের সিন্ধ্রিতে এইচইউআরএল সার কারখানার পুনরুজ্জীবন ঘটানো হবে। এছাড়াও শিল্পসংস্থা, বাণিজ্যিক সংস্থা ও অটোমোবাইল ক্ষেত্রের গ্যাসের চাহিদা মেটানো যাবে এর মাধ্যমে। সেই সঙ্গে রাজ্যের বড় বড় শহরগুলিতে এই প্রকল্পের মাধ্যমে গ্যাস সরবরাহ করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের হলদিয়া পরিশোধনাগারের দ্বিতীয় ক্যাটালিটিক-আইসোডিওয়াকসিং ইউনিটেরও শিলান্যাস করবেন। এই ইউনিটের উৎপাদন ক্ষমতা প্রতি বছর ২৭০ হাজার মেট্রিক টন। একবার এই ইউনিট কাজ শুরু করলে ১৮ লক্ষ ৫০ হাজার মার্কিন ডলারের সমতুল বিদেশী মুদ্রা সাশ্রয় করা যাবে বলে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয়।

এ ছাড়া ৪১ নম্বর জাতীয় সড়কে হলদিয়ার রানীচকে রেললাইনের ওপর ৪ লেনের উড়ালপুলটি জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করবেন প্রধানমন্ত্রী। এটি নির্মাণ করতে খরচ হয়েছে ১৯০ কোটি টাকা। এই উড়ালপুল নির্মিত হওয়ায় কোলাঘাট থেকে হলদিয়া ডক কমপ্লেক্স সহ আশেপাশের এলাকায় নিরবচ্ছিন্ন যান চলাচল সম্ভব হবে। ৪১ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে যাওয়া-আসার সময় বাঁচবে। বন্দরে যে সমস্ত ভারি যান চলাচল করে তাদের যাতায়াতের খরচ কম হবে।

এই প্রকল্পগুলো প্রধানমন্ত্রীর ‘পূর্বোদয়’ পরিকল্পনার অন্তর্গত। রাজ্যের রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়, কেন্দ্রীয় পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়েরও ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কথা।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More