মুকুলের দীর্ঘ বৈঠক তৃণমূল নেতার আশ্রমে, তাও আবার অনুব্রতর গড়ে!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃণমূল নেতার আশ্রমে পৌঁছে গেলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। সেই আশ্রমের অতিথিশালায় রুদ্ধদ্বার ঘরে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক চলল দু’জনের। এর মধ্যে যা না রাজনৈতিক জল্পনা রয়েছে তার চেয়েও বেশি রয়েছে বৈঠকের স্থান নিয়ে। মুকুল রায় রবিবার গিয়েছিলেন বীরভূমের নলহাটিতে। খোদ অনুব্রত মণ্ডলের জেলায় পৌঁছে গিয়েছিলেন তৃণমূলের একদা সেকেন্ড ইন কম্যান্ড!

স্বাভাবিক ভাবেই নলহাটি ২ নম্বর ব্লকের তৃণমূল সভাপতি বিভাস অধিকারীর আশ্রমে মুকুল রায়ের যাওয়া নিয়ে বীরভূমের রাজনীতিতে হিল্লোল বয়ে গিয়েছে। তবে মুকুল রায় জানিয়েছেন, বিভাস তাঁর পূর্ব পরিচিত। তাই তিনি আশ্রমে গিয়েছিলেন। আশ্রমের পরিকাঠামো দেখে মুকুল রায় যারপরনাই অভিভূত। বলেছেন, “ভাবাই যায় না গ্রামাঞ্চলে এইরকম একটা আশ্রম গড়ে উঠেছে!” আর বিভাস বলেছেন, আশ্রমে যে কেউ আসতে পারেন। তৃণমূলের ব্লক সভাপতির আরও বক্তব্য, “কিছু দিন আগে আমি পথ দুর্ঘটনায় আহত হয়েছিলাম। তাই দাদা আমার খোঁজ নিতে এসেছিলেন।”

বিভাসবাবু আরও বলেন, “আশ্রমে রাজনীতি নেই। আমি ঋত্বিক। অনুব্রত মণ্ডল চাইলেও আমি দীক্ষা দেব। বিজেপি নেতা চাইলেও আমি দিতে বাধ্য। আমার কাছে সবাই সমান!”

তবে অনেকেই বিষয়টাকে এত জলবৎ তরলং করে দেখতে চাইছেন না। রাজনৈতিক মহলের অনেকেই উস্কে দিয়েছেন সল্টলেকে সব্যসাচী দত্তর বাড়িতে মুকুলবাবুর লুচি, তরকারি, মিষ্টি খাওয়ার ঘটনার কথা। তাঁদের বক্তব্য, সেই লুচি খাওয়া নিয়ে বাগজোলা খাল দিয়ে অনেক জল বয়ে যাওয়ার পর এখন সেই সব্যসাচী বিজেপির রাজ্য কমিটির নেতা।

রবিবার নলহাটির অনুকূল আশ্রমে স্থানীয় আরও অনেক তৃণমূল নেতাকে দেখা গিয়েছে। তাঁরা সবাই জানিয়েছেন, এমনিই তাঁরা আশ্রমে এসেছিলেন। অনেকে আবার নাকি জানতেনও না মুকুল রায় আসবেন!

বিভাস অধিকারী ২০১২ সাল থেকে নলহাটি ২ নম্বর ব্লকের সভাপতি রয়েছেন। এই আশ্রমে এর আগে কেন্দ্রীয় বিজেপির তরফে বাংলার পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়ও এসেছিলেন। তবে মুকুল রায়ের যাওয়া নিঃসন্দেহে অনেক বেশি তাৎপর্যপূর্ণ। তৃণমূলের জেলার নেতারা এ নিয়ে মুখ না খুললেও অনেকেই বলছেন, মুকুল রায়ের আসায় জেলা নেতৃত্বের রোষানলে পড়তে পারেন বিভাস অধিকারী।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More