আত্মঘাতী বিস্ফোরণে পাকিস্তানে নিহত পিটিআই প্রার্থী, দায় স্বীকার তালিবানদের

দ্য় ওয়াল ব্যুরো: জঙ্গি হামলার সম্ভাবনা ছিলই। জারি হয়েছিল সতর্কতাও। এ বার সেটাই সত্যি করে সাধারণ নির্বাচনের ঠিক দু’দিন আগে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে কেঁপে উঠল পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশ। হামলার নিশানায় ইমরান খানের দল তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)-এর শীর্ষ নেতা সর্দার ইক্রমউল্লা গন্দপুর। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর। পুলিশ জানিয়েছে, হামলার দায় স্বীকার করেছে তালিবান গোষ্ঠী।

ভোটের আগে সভা করে ফেরার পথে খাইবার পাখতুনখোয়ার ডেরা ইসমাইল খান শহরে তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।  ডিপিও (ডেরা ইসমাইল খান) মঞ্জুর আফ্রিদি জানিয়েছেন, কুলাচি তেহসিলে সভা করতে গিয়েছিলেন গন্দপুর। ফেরার রাস্তাতেই তাঁর উপর হামলা চালানো হয়। এই বিস্ফোরণ আত্মঘাতী বলেই জানিয়েছেন তিনি। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় গাড়ির চালকের। গুরুতর জখম হন গন্দপুরের তিন দেহরক্ষী।

পুলিশ জানিয়েছে, রক্তাক্ত অবস্থায় নেতাকে প্রথমে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাঁকে স্থানান্তরিত করা হয় কমবাইন্ড মিলিটারি হাসপাতালে। সেখানেই মৃত্যু হয় তাঁর।

আগামী ২৫ জুলাই পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন। পাকিস্তানের পার্লামেন্ট ও চার প্রদেশের ভোটে নির্দল ও ধর্মভিত্তিক দলের প্রার্থীর সংখ্যা এ বার সবচেয়ে বেশি। ময়দানে রয়েছে হাফিজ় সইদের জঙ্গি সংগঠন জামাত উদ-দাওয়ার রাজনৈতিক শাখা আল্লা-হো আকবরও। এই ধর্মীয় দলগুলির দাবি, খাইবার পাখতুনখোয়ায় এ বার তারা সরকার গড়বে। তাই শুরু থেকেই নিরাপত্তা ব্যবস্থার দিকে কড়া নজর রেখেছে প্রশাসন।  ডিপিও আফ্রিদি জানিয়েছেন, আগেই হুমকি পেয়েছিলেন গন্দপুর। তাই তাঁর দেহরক্ষীর সংখ্যাও বাড়ানো হয়েছিল। কিন্তু শেষরক্ষা হল না।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More