পাঞ্জাববাসীর ‘ভয় কাটাতে’ ভ্যাকসিন কর্মসূচির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর করলেন অমরিন্দর, ঈশ্বরের আশীর্বাদ,বললেন সোনু সুদ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: লকডাউনের সময় দেশের নানা শহরে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরানোর দায়িত্ব কার্যত একার কাঁধে তুলে নিয়েছিলেন।  বিপন্ন মানুষকে আরও নানা ভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে ত্রাতার ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল তাঁকে। বলিউডির ছবির ভিলেন রূপোলি পর্দায় নয়, বাস্তবের মাটিতে নায়ক হয়ে ওঠেন।

সেই সোনু সুদকে এবার করোনা ভ্যাকসিন কর্মসূচির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর করল পঞ্জাব সরকার। শনিবার সোনুর সঙ্গে নিজের বাসভবনে দেখা করে কথা বলেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং।  আজ তিনি ট্যুইট করেন, আনন্দের সঙ্গে আপনাদের জানাচ্ছি , অভিনেতা তথা সমাজসেবী সোনু সুদ আমাদের কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন কর্মসূচির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হচ্ছেন। পঞ্জাবের প্রতিটি মানুষের কাছে পৌঁছনোয়, তাঁদের রক্ষায় আমাদের অভিযান সমর্থন করায়, যত আগে  সম্ভব ভ্যাকসিন নিয়ে নিতে সবাইকে আবেদন করায় তাঁকে ধন্যবাদ জানাই।  ভ্যাকসিন নিতে সাধারণ মানুষকে রাজি  করাতে, অনুপ্রাণিত করতে ওঁর চেয়ে যোগ্য ব্যক্তি আর কেউ নেই বলেও জানান অমরিন্দর।

সোনুও ভ্যাকসিন কর্মসূচির দূত নিযুক্ত হয়ে অত্যন্ত সম্মানিত বোধ করছেন বলে জানিয়েছেন।

অমরিন্দর সরকারি বিবৃতিতে বলেছেন, পঞ্জাবে লোকজনের মধ্যে দ্বিধা, সঙ্কোচ প্রবল। ওদের মধ্যে সোনু  সুদের জনপ্রিয়তা, গত বছর অতিমারী ছড়ানোর পর হাজার হাজার পরিযায়ী শ্রমিককে নিরাপদে ঘরে ফিরতে সাহায্য করায় তাঁর দৃষ্টান্তমূলক ভূমিকা ওদের ভয় কাটাতে সাহায্য করবে।  লোকে যখন পঞ্জাব পুত্রের মুখে ভ্যাকসিনের উপকারিতার কথা শুনবে, জানবে সেটা কতটা নিরাপদ ও জরুরি, তারা বিশ্বাস করবে, কেননা ওকে ওরা ভরসা করে।

সোনুর কথায়, আমার নিজের রাজ্যের মানুষের জীবন রক্ষায় পঞ্জাব সরকারের এই বিরাট অভিযানে যে কোনও ভূমিকা পালন করতে পারলে নিজেকে সৌভাগ্যবান মনে করব।

সোনু মুখ্যমন্ত্রীকে নিজের বই ‘আই অ্যাম নো মসীহা’-ও উপহার দেন।  মোগা থেকে মুম্বই যাত্রার অভিজ্ঞতা এই বইয়ে লেখা রয়েছে, বলছেন তিনি।  সোনুর দাবি, আমি সত্যিই বিশ্বাস করি, আমি রক্ষাকর্তা নই। ঈশ্বরের বিরাট কর্মকাণ্ডে নিজের সামান্য ভূমিকা পালন করা একটি মানুষ আমি। এর মাধ্যমে যদি কোনওভাবে কারও জীবন স্পর্শ করতে পারি, তবে শুধু বলব, ঈশ্বর আমায় আশীর্বাদ করেছেন, তিনিই আমায় নিজের কর্তব্য পালনে পথ দেখাচ্ছেন।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More