আইন করে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে রাজস্থানে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : ‘মাস্কই হল কোভিডের ভ্যাকসিন’। সোমবার এমনই মন্তব্য করলেন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গহলৌত। মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করে সোমবারই আইন আনতে চলেছে রাজস্থান সরকার। এদিন অশোক গহলৌত টুইট করে বলেন, আমাদের রাজ্যে করোনার বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে। সরকারও এই আন্দোলনে শামিল হয়েছে। আমরা আজই মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করে আইন আনতে চলেছি।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, অনেক দেশে করোনার সেকেন্ড ওয়েভের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। সেই সব দেশে আর একদফা লকডাউন করা হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আমাদেরও সতর্ক থাকতে হবে। অশোক গহলৌত জানান, করোনা পরিস্থিতির মোকাবিলায় রাজ্য সরকার দ্রুত ২ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ করছে।

রবিবার রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী শীর্ষস্থানীয় অফিসারদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তার পরে তিনি টুইট করে জানান, বৈঠকে স্থির হয়েছে ‘নো মাস্ক নো এন্ট্রি’ নীতি মেনে চলা হবে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইকে তিনি নাম দেন ‘শুদ্ধ কে লিয়ে যুদ্ধ’।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৫,২৩১ জন। সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ৪৯৬ জনের। আর সুস্থ হয়েছেন ৫৩,২৮৫ জন। ভারতে এখন সুস্থতার হার ৯১.৬৮ শতাংশ। আর মৃত্যু হার ১.৪৯ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে ৮,৫৫,৮০০ জনের কোভিড টেস্ট করানো হয়েছে। অনেকদিন পর ৯ লক্ষের পর কোভিড টেস্ট হয়েছে দেশে। গতকালের তুলনায় ফের কমল দৈনিক সংক্রমণ। কমেছে অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যাও।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিন অনুসারে আজ ২ নভেম্বর সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা মোট ৮২,২৯,৩১৩। কোভিড সংক্রমণে এখনও পর্যন্ত দেশে মৃত্যু হয়েছে ১,২২,৬০৭ জনের। সংক্রমণ সারিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৭৫,৪৪,৭৯৮ জন। ভারতে এখন অ্যাকটিভ কেস ৫,৬১,৯০৮।

ভারতের কোভিড পরিসংখ্যানের শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। দেশে কোভিড সংক্রমণের প্রাথমিক পর্যায় থেকেই মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত এবং কোভিড সংক্রমণে মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। এরপর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। তৃতীয় স্থানে রয়েছে কর্নাটক। চতুর্থ স্থানে রয়েছে তামিলনাড়ু। পঞ্চম স্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ এবং ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে রাজধানী শহর দিল্লি। মূলত এই ছয় রাজ্যেই দেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

মহারাষ্ট্রে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৬,৭৮,৪০৬। অন্ধ্রপ্রদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮,২৩,৩৪৮। কর্নাটকে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন মোট ৮,২৩,৪১২ জন। তামিলনাড়ুতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৭,২৪,৫১২।উত্তরপ্রদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪,৮১,৮৬৩। দিল্লিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩,৮৬,৭০৬।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More