নন্দীগ্রামে মহানাটক, পুনর্গণনায় মমতাকে হারিয়ে জিতে গেলেন শুভেন্দু, কোর্টে যেতে পারেন দিদি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এ যেন মহানাটকীয় ঘটনা!

রবিবার বিকেল ৫ টা নাগাদ নন্দীগ্রামে ১৭ রাউন্ড গণনা শেষ হতে না হতেই সংবাদসংস্থা এএনআই জানিয়ে দিয়েছিল, হাইভোল্টেজ সেই লড়াইয়ে জিতেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুভেন্দু অধিকারীকে তিনি পরাস্ত করেছেন ১২০০ ভোটে।

কিন্তু এক ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই মহানাটকীয় পরিবর্তন ঘটে গেল। শুভেন্দুর তরফে পুনর্গণনার দাবি জানানো হয়। নতুন করে গণনার পর দেখা যায় ১৬২২ ভোটে এগিয়ে গিয়েছেন শুভেন্দু। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অর্থাৎ সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টা পর্যন্ত অবশ্য আনুষ্ঠানিক ভাবে নির্বাচন কমিশন ঘোষণা করেনি। তবে স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে যে কঠিন লড়াই করেও নন্দীগ্রামে পরাস্ত হয়েছেন মমতা।

এ ব্যাপারে প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন দিদি। তাঁর কথায়, আমরা ২০০-র বেশি আসনে জিতেছি। একটা আসনে হারা জেতা বড় ব্যাপার নয়। ওরা একবার ঘোষণা করে দিয়েছিল যে আমি জিতে গেছি। এখন বলছে হেরে গেছি। এটা কী করে হয় জানি না। তবে ওখানকার মানুষ যে রায় দিয়েছেন তা মেনে নিচ্ছি। ওখানে ভোট গণনা যাতে রিভিউ করা হয় সেই দাবি জানাব। দরকার হলে আদালতেও যাব।

এদিন নন্দীগ্রামে ভোট গণনায় সকাল থেকে এগিয়ে ছিলেন শুভেন্দু। গোড়ায় একের পর এক রাউণ্ডে তার জয়ের ব্যবধান বাড়ছিল। এক সময়ে তা ১০ হাজার পেরিয়ে যায়। কিন্তু পরের রাউন্ডগুলিতে ব্যবধান কমতে থাকে। এক সময়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে যান। ফের তাঁকে পিছনে ফেলে ৬ ভোটে এগিয়ে যান শুভেন্দু। তার পর বিকেল পাঁচটা নাগাদ হঠাৎই সংবাদসংস্থার একটি খবর রটে যায়। বলা হয়, দিদি ১২০০ ভোটে জিতে গিয়েছেন।

কিন্তু সেই খবর যখন রটে যায়, তখনও দেখা যায় দুর্গ আগলে বসে রয়েছেন শুভেন্দু। তার কিছু পরই জানা যায় যে ১৬২২ ভোটে এগিয়ে গিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। নন্দীগ্রামে জিতেছেন তিনিই।

বঙ্গোপসাগরের তীরবর্তী এই বালিমাটির জনপদে এবার গোড়া থেকেই ভোট ছিল রোমহর্ষক। শেষটাও সে ভাবেই হল।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More