রেডমি নোট ১০ সিরিজে টাচস্ক্রিনের সমস্যা? ক্রেতাদের অভিযোগে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস শাওমির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত মার্চ মাসে সাড়া জাগিয়ে ভারতের বাজারে নোট ১০ সিরিজের তিনটি স্মার্টফোন এনেছিল শাওমি। কিন্তু এক মাস গড়াতে না গড়াতেই গ্রাহকদের অভিযোগে জেরবার এই মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা। ক্রেতাদের দাবি, মোবাইলের স্ক্রিনে গুরুতর সমস্যা রয়েছে। কোনওকিছুই ঠিকমতো টাইপ হচ্ছে না। পাশাপাশি নতুন মোবাইল শুরু থেকেই খুব আস্তে কাজ করছে।

অবশ্য ক্রেতাদের অভিযোগ মেনে নিয়েছে শাওমি। টাচস্ক্রিনে গলদ মেরামতের কাজও আরম্ভ হয়েছে। যদিও জারি করা নির্দেশিকায় এই চিনা সংস্থার দাবি, আদতে প্রচুর নয়, মোটে .০০১ শতাংশ ক্রেতা এই সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন।

নোট ১০ সিরিজের মোট তিনটি ভেরিয়েন্ট রয়েছে—নোট ১০ প্রো ম্যাক্স, নোট ১০ প্রো এবং নোট ১০। তিনটি শ্রেণির মোবাইলেই সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে দেওয়া হয়েছে। যদিও ‘রিফ্রেশ রেট’-এর তারতম্য রয়েছে। মোবাইলের ছবি এবং ভিডিও-র গুণাগুণ এই রিফ্রেশ রেটের উপর নির্ভরশীল। নোট ১০ প্রো এবং ম্যাক্স—দু’টোতেই যার হার ১২০ হার্জ। অন্যদিকে নোট ১০-এ এটি ৬০ হার্জের।

ক্রেতাদের অভিযোগ, তিনটি মোবাইলেই টাচস্ক্রিনে গলদ রয়েছে। আবার মাঝেমধ্যে স্ক্রিন দপ করে উঠছে। যা শাওমির আগের কোনও মডেলে খুব একটা চোখে পড়েনি।

যদিও সংস্থা তাঁদের আশ্বস্ত করে একটি বিবৃতি জারি করেছে। সেখানে বলা হয়েছে, ‘কিছু গ্রাহক রেডমি নোট ১০ প্রো নিয়ে ঝামেলায় পড়েছেন। আমরা চটজলদি সমস্যা মেটানোর চেষ্টা করছি। আমাদের প্রতিটি মোবাইলই ১০ ধাপ গুণমান পরীক্ষার পর বাজারে ছাড়া হয়। যাতে পরে কোনওরকমের অভিযোগ না ওঠে, সেদিকে আমাদের কড়া নজর থাকে। তাই যে সমস্যা এখন দেখা গিয়েছে, তার জন্য আমরা ক্রেতাদের কাছে আন্তরিকভাবে দুঃখিত।’

যদিও এরপরেও টুইটারে ক্রেতাদের ক্ষোভ থামেনি। টাচ ও স্ক্রিনের সমস্যার পাশাপাশি হ্যান্ডসেট হঠাৎ করে নিস্ক্রিয় হয়ে পড়ার অভিযোগও তুলেছেন কেউ কেউ৷

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More