রবার্ট বঢরার করোনা পজিটিভ, নির্বাচনী সফর বাতিল করে আইসোলেশনে গেলেন প্রিয়ঙ্কা

দ্য ওয়াল ব্যুরো : শিল্পপতি রবার্ট বঢরা ফেসবুকের মারফৎ জানিয়েছিলেন, তিনি করোনা পজিটিভ। এরপরে তাঁর স্ত্রী তথা কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী জানিয়েছেন, তিনিও দিল্লির বাড়িতে তিনি সেলফ আইসোলেশনে রয়েছেন। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে তাঁর অসম, তামিলনাড়ু ও কেরলে নির্বাচনী প্রচারে যাওয়ার কথা ছিল। সেসবই বাতিল করা হয়েছে। রবার্ট বঢরা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন, কোভিড বিধি মেনে তিনি ও তাঁর স্ত্রী সেলফ আইসোলেশনে আছেন। যদিও প্রিয়ঙ্কা করোনা নেগেটিভ হয়েছেন।
টুইটারে এক ভিডিও পোস্ট করে ৪৯ বছর বয়সী প্রিয়ঙ্কা জানান, বৃহস্পতিবার তিনি করোনা নেগেটিভ হয়েছেন। কিন্তু তাও ডাক্তারদের পরামর্শে আইসোলেশনে গিয়েছেন। শুক্রবারই তাঁর অসমে যাওয়ার কথা ছিল। শনিবার তামিলনাড়ুতে ও রবিবার কেরলে যাওয়ার কথা ছিল তাঁর।
৪১ সেকেন্ডের ভিডিওতে প্রিয়ঙ্কা বলেছেন, নির্বাচনী প্রচারে যেতে না পারার জন্য সকলের কাছে ক্ষমা চাইছি। আমি আশা করি, যে প্রার্থীদের হয়ে আমার প্রচার করার কথা ছিল, তাঁরাই সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে শ্রেষ্ঠ প্রার্থী বলে বিবেচিত হবেন। কংগ্রেসই বিজয়ী হবে।
রবার্ট জানান, তাঁদের দুই সন্তান গত কয়েকদিন ধরে তাঁদের সঙ্গেই আছেন। তিনি বাদে বাড়ির সকলে করোনা নেগেটিভ হয়েছেন।
শুক্রবারই অসমের ঘটনা নিয়ে টুইট করেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। বৃহস্পতিবার অসমে ভোট শেষ হওয়ার পরে প্রাইভেট গাড়িতে ভোটযন্ত্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয় নির্বাচন কমিশনের একটি টিম। তা নিয়েই ব্যাপক অশান্তি হয় বরাক উপত্যকায়। বিরোধী দলের সমর্থকরা গাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। জানা যায়, গাড়িটির মালিক করিমগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী। উত্তেজিত জনতাকে হটাতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে, শূন্যে গুলি চালায়। পরে পুলিশ জানিয়েছে, ভোটযন্ত্রটি অক্ষত আছে। ভোটকর্মীরাও কেউ আহত হননি।
প্রিয়ঙ্কা বলেন, নির্বাচন কমিশনের কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। তাছাড়া ইভিএমের ব্যবহার নিয়ে জাতীয় দলগুলিরও গুরুত্বের সঙ্গে চিন্তাভাবনা করা প্রয়োজন।
শুক্রবার সকালে জানা যায়, তার আগের ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন ৮১ হাজার ৪৬৬ জন। অতিমহামারী শুরু হওয়ার পরে সব মিলিয়ে দেশে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১ কোটি ২৩ লক্ষ। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গিয়েছেন ৪৬৯ জন। যে রাজ্যগুলিতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ হয়েছে, তাদের মধ্যে আছে মহারাষ্ট্র, ছত্তিসগড়, কর্নাটক, পাঞ্জাব, কেরল, তামিলনাড়ু, গুজরাত ও মধ্যপ্রদেশ। সারা দেশে যতজন সংক্রামিত হয়েছেন, তাঁদের ৮৪.৬১ শতাংশ বাস করেন ওই রাজ্যগুলিতে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More