ভারতে কোভিড ভাইরাসের সব ধরনের বৈচিত্র্য ধরা পড়ে আরটি-পিসিআর টেস্টে, জানিয়ে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আরটি-পিসিআর টেস্টে নাকি নোভেল করোনা ভাইরাসের নতুন নতুন রূপ ধরা পড়ছে না, এমনটা শোনা যাচ্ছে ইদানীং। ভারত সহ দুনিয়ার একাধিক দেশে কোভিড ১৯ ভ্যাকসিনের বারবার মিউটেশন বা চরিত্র বদল ঘটছে বলে খবর। কিন্তু মিডিয়ায় প্রকাশিত এই সংক্রান্ত যাবতীয় রিপোর্ট খারিজ করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষবর্ধন ট্যুইট করে জানিয়ে দিলেন, আরটি-পিসিআর টেস্টে সার্স-কোভ-২ এর নানারকম চরিত্র বদল ধরা পড়বেই, তাদের চিহ্নিত করতে ব্যর্থ হয় না এই টেস্ট।

 

ভারতে কোভিড-১৯ এর ব্রিটিশ, ব্রাজিল, দক্ষিণ আফ্রিকা, সব ধরনের বৈচিত্র্য, চরিত্র বদলই দেখা গিয়েছে। কেন্দ্র জানিয়ে দিল, যাবতীয় বৈচিত্র্য ধরে ফেলতে, প্রকাশ করতে সক্ষম আরটি-পিসিআর টেস্ট। ভারতীয় সার্স-কোভ-২ জেনেমিকস কনসর্টিয়াম জেনোম সিকোয়েন্সের জন্য ১৩ হাজারের ওপর নমুনা প্রসেস করেছে। একইসঙ্গে পরামর্শ দেওয়া সত্ত্বেও একাধিক রাজ্য কোভিড পজিটিভ ব্যক্তিদের ক্লিনিকাল ডাটা ও জেনোম সিকোয়েন্সিংয়ের নমুনা পাঠায়নি বলে জানিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছে কেন্দ্র।
গত ২৪ মার্চ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানায়, জেনোমিকস সংক্রান্ত ভারতীয় সার্স-কোভ-২ কনসর্টিয়াম দ্বারা জিনোম সিকোয়েন্সিং করে ভারতে একটি নোভেল ভ্যারিয়্যান্ট বা রূপের অস্তিত্ব মিলেছে। নোভেল সার্স-কোভ-২ এর নতুন চেহারা পাওয়া গিয়েছে মহারাষ্ট্রে, যার ডাবল মিউটেশন হয়। জেনোমিকস সংক্রান্ত ভারতীয় সার্স-কোভ-২ কনসর্টিয়াম হল ১০টি ন্যাশনাল ল্যাবরেটরির জোট, যা কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রক গঠন করেছে। কনসর্টিয়াম জেনোমিক সিকোয়েন্সিং ও ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ ভাইরাসের বিশ্লেষণ করছে, জেনোমিক ভ্যারিয়েন্টের সঙ্গে অতিমারী প্রবণতার যোগসূত্র খতিয়ে দেখছে।
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক বলেছে, কনসর্টিয়াম তার কাজ শুরুর পর থেকে ৭৭১ রকমের উদ্বেগজনক ভ্যারিয়্যান্ট বা বৈচিত্র্যের সন্ধান পেয়েছে ১০৭৮৭ টি পজিটিভ নমুনার মধ্য থেকে। এর মধ্যে ব্রিটিশ ভাইরাসের নমুনা ৭৩৬টি, দক্ষিণ আফ্রিকার ৩৪টি, একটি ব্রাজিল ভাইরাস। দেশের ১৮টি রাজ্যে এই উদ্বেগজনক বৈচিত্র্যের সন্ধান মিলেছে।

Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More