স্তব্ধ হল ‘শঙ্খ’ধ্বনি, শোকার্ত গোটা সংস্কৃতিজগৎ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: হঠাৎই চুপ করে গেল ‘কবিতার মুহূর্ত’রা। কিন্তু কবির মৃত্যু নেই, ‘নিঃশব্দের তর্জনী’ তাই আজীবন রয়ে যাবে। তিনি ছুঁয়ে দেখতে শিখিয়েছিলেন সাহিত্যপ্রেমী মানুষদের ‘শব্দ’কে, ‘শব্দের পবিত্র শিখা’ তাই অক্ষয়। করোনা কেড়ে নিয়েছে বাংলা সাহিত্যের অন্যতম নক্ষত্র শঙ্খ ঘোষকে। শঙ্খ ঘোষের প্রয়াণ গোটা সাহিত্য, শিল্প সংস্কৃতি জগতের অপূরণীয় ক্ষতি। তিনি বটগাছের মতো করে আগলে রেখেছিলেন বাংলা ভাষাকে, বলে মনে করেন অনেকেই!

কবির মৃত্যু নেই! তবুও আজ যেন মনের ঈশানকোণে কালো মেঘের ছায়া। মনখারাপ সাধারণ সাহিত্য প্রেমী মানুষ থেকে শুরু করে শিল্পীদেরও। অভিনেত্রী বিদীপ্তা চক্রবর্তী নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে শোক প্রকাশ করে লেখেন, “বিদায় শঙ্খ বাবু। আমাদের জাতির এ ক্ষতি আর পূরণ হবে না কোনদিন।” অন্যদিকে টলিপাড়ার আরও একজন শিল্পী, অভিনেত্রী সুদীপ্তা চক্রবর্তীও দুঃখ প্রকাশ করেন। সেই সঙ্গে করোনার ভয়াবহতা নিয়েও বার্তা দেন। তিনি লেখেন, “আবারও নক্ষত্র পতন।”

গঙ্গাজলে গঙ্গাপুজোর মতো কবির লেখা দিয়েই কবিকে স্মরণ করেছেন অভিনেতা অনির্বাণ ভট্টাচার্য। তিনি লেখেন, “শুধু প্রস্থানের দ্বারটিই খোলা। প্রবেশ দ্বারে শয়তানও সংখ্যা।” অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ও শঙ্খ ঘোষের প্রয়াণে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি লেখেন, “অকল্পনীয় অভাবনীয় অপূরণীয় ক্ষতি… ভাল থাকবেন কবি।”

শুধু অভিনেতা, অভিনেত্রীরাই নন শোকবার্তা জানিয়েছেন গায়ক রূপম ইসলামও। তিনি তাঁর সোশ্যাল মিডিয়াতে কবির লেখা একটি অনুবাদ কবিতা পোস্ট করেন ও লেখেন, “কবি শঙ্খ ঘোষ। আলাপ হয়েছিল। টুকরো কথা, মাত্র একবার। তাঁকে স্মরণ করছি অন্যতম পছন্দের একটি রচনায়।”

কবির মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ গোট সাহিত্য, সংস্কৃতি জগৎ। কবি জয় গোস্বামীর স্ত্রী কাবেরী গোস্বামীও ভীষণই মর্মাহত। তিনিও শোক প্রকাশ করে লেখেন,”আর কেউ রইলেননা…।” অন্যদিকে, কবি মন্দাক্রান্তা সেন লেখেন, “আমি দ্বিতীয়বার পিতৃহীন হলাম!”

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More