শর্মিলা ঠাকুরের সঙ্গে কেমন সম্পর্ক সারা আলি খানের? ‘বড়আম্মা’কে খোলা চিঠি নাতনির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শর্মিলা ঠাকুর, সিনেমা জগতে এই নামটাই একটা ব্র্যান্ড। নতুন করে তাঁর কোনও পরিচয় দিতে হয় না। আপামর সিনেমাপ্রেমী মানুষ তাঁর অভিনয়ে, সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে রয়েছেন। নিজের দক্ষতাতে তিনি জয় করে নিয়েছেন সকলের হৃদয়। শুধু গ্ল্যামার জগতে নয়! বাংলার মেয়ে শর্মিলা, পতৌদি পরিবাবের বউও। ‘অপুর সংসার’-এর অর্পনা, আজ দেশ বিদেশের বহু মানুষের থেকে পেয়েছেন সম্মান। সেই শর্মিলা ঠাকুর ৮ ডিসেম্বর ২০২০ তো পা দিলেন ৭৬ বছর বয়সে। জীবনের রূপকথা লেখার খাতাতে বেড়ে গেল তাঁর আরও একটি বছর।

অভিনয় জগতে এখনও নক্ষত্রের মতো উজ্জ্বল হয়ে রয়েছেন পতৌদি পরিবারের পুত্র সইফ আলি খান ও কন্যা সোহা আলি খান, নাতনি সারা আলি খান। তবে এখন যা নিয়ে কথা হবে, তা শুনলে আপনাদেরও মন ভাল হয়ে যাবে সে কথা হলফ করে বলা যায়। ব্যক্তিগত জীবনে শর্মিলা ঠাকুর ঠিক কীরকম সেই নিয়ে মুখ খুলেছেন নাতনি সারা আলি খান। এমনিতেই নাতি-নাতনিদের সঙ্গে ঠাম্মা দাদুর সম্পর্ক হয় খুবই মিষ্টি। এই দিন ঠাম্মার জন্মদিনে সারা, শর্মিলা ঠাকুরের জন্য কলম তুলে নেন। লেখেন খোলা চিঠি, “শুভ জন্মদিন বড় আম্মা। আমাকে সমর্থন করার জন্য, আমার পাশে থাকার জন্য, ভরসা দেওয়ার জন্য, পথ দেখানোর জন্য, আমার জীবনের সব থেকে বড় অনুপ্রেরণা ও স্তম্ভ হওয়ার জন্য অনেক অনেক ধন্যবাদ।আমি তোমাকে খুব খুব ভালবাসি।” না, শুধু চিঠি লিখেই থেমে থাকেন নি সারা! নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার পেজে পোস্ট করেছেন শর্মিলা ঠাকুরের সঙ্গে কাটানো মুহূর্তের ছবিও। যা ভাইরাল হতে সময় নিয়েছে মাত্র কয়েক সেকেন্ড।

ঠাম্মাকে জড়িয়ে ধরে তোলা সেই ছবি অনেকেই নস্টালজিক করে তুলেছে। অনেকে আবেগ তাড়িত হয়ে করেছেন বহু কমেন্টও। বলাই বাহুল্য, গোলাপি সালোয়ারে সারাকে দেখতে সকলেরই খুবই মিষ্টি লেগেছে। সারা তাঁর পরবর্তী সিনেমা ‘কুলি নং ১’ এর কথা জানান। এখানে তিনি অক্ষয় কুমারের বিপরীতে অভিনয় করবেন।

আরও পড়ুন: মানিকদার অভিনয়ের অর্ধেকই হয়তো ক্যামেরার সামনে সেদিন  করতে পেরেছিলেন উত্তমবাবু: শর্মিলা ঠাকুর

এছাড়াও শর্মিলা ঠাকুরের জন্মদিনে তাঁকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন পুত্রবধূ করিনা কাপুর খানও। শর্মিলা ঠাকুরের ছবি পোস্ট করে বেবো লেখেন যে তাঁর শাশুড়ি মা শর্মিলা কোনও দিন কোনও কাজেই করিনাকে বাধা দেন নি। বরং নিজের মেয়ের মতো করেই আগলে রেখেছেন। এর সঙ্গে করিনা আরও জানান যে শর্মিলা ঠাকুর এমন একজন মানুষ যিনি নিজের কেরিয়ার আর সংসার দুটোকেই সমান গুরুত্ব দিয়ে চালিয়েছেন। শর্মিলা ঠাকুরের জীবনের যাত্রা করিনাকে খুবই অনুপ্রাণিত করে। আর শর্মিলা ঠাকুরও বউমার কোনও খুঁতই দেখতে পান না। সবসময়ই প্রশংসা করেন করিনার। করিনা নিজেই স্বীকার করেছেন এ কথা।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More