‘কয়েকটা ভোটের ব্যবধানে আমার প্রতিশ্রুতি বদলায়নি’, মমতাকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বললেন সায়ন্তিকা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃতীয় বারের জন্য বাংলার মসনদে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ তাঁর শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠান। অন্যদিকে এবারের ভোটে ঘাসফুল শিবিরে অনেকটাই কাজে দিয়েছে তারকা ম্যাজিক। কিন্তু সকলে শেষ পর্যন্ত জয়ের হাসি হাসতে পারেননি। অভিনেত্রী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায় বাঁকুড়া থেকে ভোটে দাঁড়ান কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি!

প্রাণপন চেষ্টা করেছেন তিনি, কিন্তু মাত্র কয়েকটা ভোটের ব্যবধানে হেরে যান অভিনেত্রী প্রার্থী সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। জীবনের প্রথম বিধানসভা নির্বাচনে পরাজিত হয়েও দমে যাননি অভিনেত্রী। এগিয়ে এসেছেন কাজ করতে। সেখানকার মানুষের পাশে থাকতে। কোভিড আক্রান্তদের জন্য অ্যাম্বুল্যান্স পরিষেবা চালু হওয়ার কথা ইনস্টাগ্রামে জানালেন অভিনেত্রী। মানুষের সুবিধার্থে ভাগ করে নিয়েছেন একাধিক যোগাযোগ নম্বর।

প্রচারের শুরু থেকেই বলেছিলেন, বাঁকুড়ার সঙ্গে আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠেছে তাঁর। দাবি করেছিলেন, নিজের পরিবারের সমস্যা যে ভাবে সমাধান করেন, সেখানকার মানুষের সমস্যার সমাধানও খুঁজবেন সে ভাবেই। তাই প্রাপ্ত ভোটের অঙ্কে নজর দিচ্ছেন না অভিনেত্রী। কারণ তিনি হেরে গেলেও, রাজ্যে ক্ষমতায় এসেছে তৃণমূল সরকার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তৃতীয় বার ‘অভিভাবিকা’ হিসেবে বেছে নেওয়ার জন্য একটি পোস্টের মাধ্যমে তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছেন নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রের মানুষদের। তার সঙ্গেই জানিয়েছেন, হার-জিতের ঊর্ধ্বে গিয়েই তাঁদের পাশে থাকবেন তিনি। তাঁর কথায়, “কয়েকটা ভোটের ব্যবধানে আমার প্রতিশ্রুতিগুলো বদলায়নি। প্রথম দিনের মতো আজকের দিনেও আমি ঠিক একই কথা বলব, সুখে না থাকতে পারি দুঃখে অবশ্যই থাকব।” এছাড়াও সকলকে মাস্ক পরতে, কোভিডবিধি মানতে ও ভ্যাক্সিন নিতে অনুরোধ জানান সায়ন্তিকা।

২০১৯-এর লোকসভায় পিছিয়ে থাকা আসনকে সায়ন্তিকা অনেকটা এগিয়ে এনেছেন বিধানসভা নির্বাচনে। সদ্য রাজনীতিতে অভিষেক হওয়া অভিনেত্রীর কাছে এই গতি সাফল্যের চেয়ে কম কিছু নয়। অতিমারিকালে তাই টলি পাড়ার চাকচিক্য থেকে বেরিয়ে বাঁকুড়ার মানুষের পাশে সায়ন্তিকা।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More