করোনার মধ্যেও কুম্ভমেলাকে সমর্থন যোগেশ্বরের, তুমুল সমালোচনা করলেন অভিনব বিন্দ্রা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা আবহের মধ্যেই বাকযুদ্ধ লেগে গেল দেশের নামী দুই ক্রীড়াবিদের। দুইজনই স্ব স্ব ক্ষেত্রে কিংবদন্তি, সেই অলিম্পিক পদকজয়ী শুটার অভিনব বিন্দ্রা সমালোচনায় মাতলেন কুস্তিগির যোগেশ্বর দত্তের। তিনিও অলিম্পিকে ব্রোঞ্জধারী।

করোনাভাইরাসের নয়া ঢেউয়ের মধ্যে নানা সতর্কতা জারি হয়েছে। তার মধ্যেই কুম্ভমেলায় উপচে পড়ছে ভিড়। সেই নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রকও তটস্থ। ইতিমধ্যেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীকে জানিয়েছেন, এবার প্রতীকী কুম্ভমেলা পালনের।

খবর মিলেছে মেলায় বহু সন্ন্যাসি এখনই কোভিডে আক্রান্ত। এই ভাইরাস ভেদাভেদ করে না, কাউকে রেয়াত করে না, সেটি জেনে গিয়েছে সবাই।

এই অতি মহামারীর মধ্যে কুম্ভমেলার পক্ষেই সায় দিয়ে বক্তব্য রেখেছেন যোগেশ্বর দত্ত। তিনি টুইট করে লিখেছেন, “কুম্ভমেলায় কোনও মানুষই বেআইনিভাবে প্রবেশ করেননি। সমস্ত কোভিড প্রটোকল মেনেই সেখানে হাজির তাঁরা। নিরাপত্তারক্ষী ও চিকিৎসা কর্মীদের কথা মেনেই মানুষ উৎসবে সামিল হয়েছেন। প্রশাসনের হাত থেকে বাঁচতে কেউ পালিয়ে বেড়াচ্ছে না। কুম্ভে যেসব পূর্ণার্থিরা গিয়েছেন, তাঁদের দোষ ধরতে কিংবা নিন্দে বন্ধ করুন অবিলম্বে।’’

যোগেশ্বরের এই কথাতেই আপত্তি তুলেছেন বেজিং অলিম্পিকে সোনা জয়ী শুটার।  বিন্দ্রা লিখেছেন, লিখেছেন, “এই ভাইরাসের সংক্রমণ যেখানে গোটা দেশকে বিনষ্ট করছে, সেখানে এখনও কুম্ভমেলা হওয়া কি যুক্তিযুক্ত? ভাইরাস কিন্তু সংক্রমণের আগে জাত-ধর্ম বিচার করে না।”

ইতিমধ্যেই লক্ষাধিক মানুষ হরিদ্বারের কুম্ভমেলায় হাজির হয়েছেন। এই মেলা বন্ধ না করতে পারলে সেটি ভয়ানক চেহারা নিতে পারে। কারণ মারণ ভাইরাস সর্বত্রই ছড়াচ্ছে। সদ্য বিজেপি-তে যোগ দিয়েছেন যোগেশ্বর। তিনি এক্ষেত্রেও পক্ষপাতিত্ব করে বক্তব্য রাখছেন। তাই এই ঘটনায় বিন্দ্রা তাঁকে আক্রমণ করতে ছাড়েননি।

বিন্দ্রাও আরও লিখেছেন, “অ্যাথলিটরা সবসময় নিজেদের পারফরম্যান্সের ওপরই লক্ষ্য রাখেন। আমাদের উচিত সবাই মানুষের প্রাণরক্ষা করা, যাতে এই ভাইরাস বড় আকার ধারণ না করতে পারে। কী করলে আমরা সুস্থ থাকব, আপনজনদের সুস্থ রাখতে পারব, সেটাই ভাবা উচিত।’’

যোগেশ্বরের এই মন্তব্য যে তিনি মর্মাহত, সেটিও বলেছেন অভিনব। তাঁর কথায়, ‘‘আমি আপনার মন্তব্যে অত্যন্ত হতাশ হয়েছি।’’

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More