‘হয় এবার, নয় নেভার’, কোপায় দল ঘোষণার পরে মেসির উদ্দেশ্যে বার্তা সমর্থকদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একেকটি করে মেগা ইভেন্ট আসে, প্রতিবার একই প্রশ্ন থাকে, লিওনেল মেসির নেতৃত্বে কি কাপ জিতবে আর্জেন্টিনা? সারা বিশ্বের অগনিত সমর্থকরা এই আশা নিয়ে বুক বেঁধে খেলা দেখতে বসেন। কিন্তু প্রতিবারই বিফল মনোরথ হয়ে তাঁদের প্রিয় দল হার মানে, সমর্থকরাও ব্যথিত হন।

এবার কি চাকা ঘুরবে কোপা আমেরিকায়? সেই একই প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। মেসি নিজের দেশকে চ্যাম্পিয়ন করতে পারেন না, এমন এক কথা বহুবার উঠেছে, খেতাব জিতে প্রমাণও করতে পারেননি তিনিও পারেন কথা রাখতে।

আর্জেন্টিনা সেই ১৯৯৩ সালে শেষবার কোপা ঘরে তুলেছিল। ২০০৪ থেকে চারবার ফাইনালে পৌঁছেও খেতাব অধরা রয়ে গিয়েছে তাদের। মারাদোনাও এখন নেই, যিনি দেশ জিতলে সবচেয়ে বেশি খুশি হতেন। এবারের দল কেমন হল, কারাই বা দলে রয়েছেন, সেই নিয়ে আলোচনা করা হল।

দলের শক্তি নিয়ে যদি কথা বলতে হয়, তা হলে অব্যর্থভাবে আসবেন লিওনেল মেসির কথাই। তিনি খেললে একাই একশো। বার্সার জার্সিতে তিনি বরাবরই সেরা, দেশের জার্সিতে নন। এমনকি হতাশায় অবসরও নিয়ে ফেলেছিলেন। অবসর ভেঙে ফিরে এসেছেন রাষ্ট্রনায়কের অনুরোধে।

মেসির হয়তো এটাই শেষ কোপার আসর, পরেরবার তাঁর বয়স হয়ে যাবে ৩৭। তাই আর্জেন্টিনা সমর্থকদের আশা, এবারই মেসির কাছে শেষ সুযোগ দেশকে বড় কোনও সাফল্য এনে দেওয়ার। কাতার বিশ্বকাপ রয়েছে অবশ্য, কিন্তু তার আগে কোপায় শেষ বার খেলে যদি কাপ এনে দিতে পারেন দেশকে, তা হলে তাঁর মাথার ওপর থেকে চাপটা কমবে।

কোচ লিওনেল স্কালোনির ছক নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। ম্যাচে তিনি ডি’মারিয়াকে যেভাবে খেলাবেন ঠিক করেছেন, তাতে বোঝাই যাচ্ছে জিততে নয়, আগে হার বাঁচানোই লক্ষ্য তাঁর। ম্যাঞ্চেস্টার সিটির জার্সিতে অনুজ্জ্বল ছিলেন আগুয়েরো, তাঁকেও রাখা হয়েছে।

একইসঙ্গে ডিবালা ও মুর্নো ইকার্ডিকে পাচ্ছে না দল। প্রসঙ্গত, সোমবার রাতে চিলির বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে কোপা অভিযান শুরু করবেন মেসিরা। ১৯ জুন উরুগুয়ে, ২২ জুন প্যারাগুয়ে, ২৯ জুন বলিভিয়ার বিরুদ্ধে খেলবে আর্জেন্টিনা।

কোপায় আর্জেন্টিনা দল:

গোলকিপার: এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, হুয়ান মুসো, অগাস্টিন মার্সেসিন

রক্ষণ: ক্রিশ্চিয়ানো রোমেরো, লিসান্দ্রো মার্টিনেজ, জার্মান পেজেয়া, হোসে লুই পালোমিনো, লুকাস কার্তা, হুয়ান ফয়েথ, নিকোলাস ওটামেন্ডি, নিকোলাস ট্যালিয়াফিকো, মার্কোস অকুনা, মোলিনা।

মাঝমাঠ: প্যারেডস, রডরিগেজ, রড্রিগো ডি’পল, সেলসো, পালাসিও, ডমিনগুয়েজ।

আক্রমণভাগ: লুকাস ওকাম্পোস, নিকোলাস গঞ্জালেজ, লিওনেল মেসি, ডি মারিয়া, বুয়েন্দিয়া, জে কোরেয়া, পাপু গোমেজ, লুটারো মার্টিনেজ, এ কোরেয়া, সার্জি অ্যাগুয়েরো, লুকাস আলারিও।

 

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More