মেসির সতীর্থ, আর্জেন্টিনার লড়াকু তারকা মাসচেরেনোর বিদায় ফুটবল থেকে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফুটবলকে বিদায় জানালেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার জেভিয়ার মাসচেরেনো। আর্জেন্টিনা জাতীয় দল থেকে তিনি অবসর নিয়েছিলেন দুই বছর আগেই, ২০১৮ সালে। সবধরনের ফুটবল থেকে বুটজোড়া তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি।

জাতীয় দলের পাশাপাশি লাতিন আমেরিকা ও ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে সাফল্যের সঙ্গেই ১৭ বছর খেলেছেন এই মহাতারকা। চলতি বছরের জানুয়ারিতে তিনি ফিরেছিলেন নিজ দেশের ক্লাব লা প্লাটায়। যাদের সঙ্গে ২০২০-২১ মরসুমের পুরোটা খেলার চুক্তি করেছিলেন।

তবে মরসুম শুরুর দিকেই অবসরের সিদ্ধান্ত নিলেন ৩৬ বছর বয়সী এই ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার। অবসরের ঘোষণা করে মাসচেরেনো বলেছেন, ‘‘ব্যক্তিগত ও পেশাগত দিক থেকে চিন্তা করে আমার মনে হয়েছে, ক্যারিয়ার শেষ করার সময় এসেছে। বারবার চিন্তা করার পর মনে হয়েছে আজই এটি করা উচিত।’’

তিনি না থেমে আরও জানান, ‘‘আমি পেশাদার ফুটবলার হিসেবে নিজের একশোভাগ মন দিয়ে খেলেছি, সবসময় সেরাটা দিয়েছি। তবে এখন আমার মনে হচ্ছে, নিজের পক্ষে সেরাটা দেওয়া বেশ কঠিন। আমি লা প্লাটাকে অসম্মান করতে চাই না। তারা আমার ওপর ভরসা রেখেছে, আর্জেন্টিনায় ফেরার পর খেলার সুযোগ দিয়েছে।’’

মাসচেরেনো মানেই লড়াকু ফুটবল, দাঁতে দাঁত চেপে লড়াই, কঠোর পরিশ্রম। সেই কথা মনে রেখেই তিনি সাংবাদিক সম্মেলনে বলেছেন, ‘‘ক্লাবের ফল কিংবা অন্যান্য পরিস্থিতির সঙ্গে আমার এ সিদ্ধান্তের কোনও যোগ নেই। সাম্প্রতিক সময়ে নিজের মনের সঙ্গে চলা লড়াইয়ের অংশ হিসেবে এ সিদ্ধান্ত। মহামারির পরে আমি ভেবেছিলাম হয়তো আবার আগের মতো খেলতে পারব। কিন্তু কঠিন সত্য হচ্ছে, আমি তা পারছি না।’’

২০০৩ সালে স্বদেশি ক্লাব রিভারপ্লেটের হয়ে পেশাদার ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন মাসচেরেনো। শেষ করলেন লা প্লাটার হয়ে। মাঝে খেলেছেন কোরিন্থিয়াস, ওয়েস্ট হ্যাম, লিভারপুল,  বার্সেলোনা ও হেবেই চায়নার হয়ে।

নিজের ক্যারিয়ারের সোনার সময় কাটিয়েছেন বার্সেলোনায়। ওইসময় বার্সা রক্ষণের তিনি ছিলেন স্তম্ভ। মেসি ও মাসচেরেনো জুটি সেবার তাক লাগিয়ে দিত। প্রসঙ্গত, ২০১০-১১ মরসুম থেকে পরের আট বছর অর্থাৎ ২০১৭-১৮, পুরোটা কাতালান ক্লাবের হয়ে খেলেছেন তিনি। যেখানে পেয়েছেন একের পর এক সাফল্যের দেখা। বার্সার হয়ে ৫টি লা লিগা,  ৫টি কোপা দেল রে, ৩টি স্প্যানিশ সুপার কাপ, ২টি চ্যাম্পিয়নস লিগ,  ২টি উয়েফা সুপার কাপ ও ২টি ক্লাব বিশ্বকাপ জিতেছেন মাচেরানো।

আর্জেন্টিনার হয়ে তাঁর সেরা সাফল্য ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে রানার্স-আপ হওয়া। এছাড়া কোপা আমেরিকায় রানার্সআপ হয়েছেন চারবার (২০০৪, ২০০৭, ২০১৫ ও ২০১৬)। দুইবার জিতেছেন অলিম্পিকে সোনার পদক। তাঁরও আক্ষেপ, দেশের হয়ে বিশ্বকাপ জিততে পারেননি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More