লাবুশানে, স্মিথের হাফসেঞ্চুরিতে চালকের আসনে অস্ট্রেলিয়া, চাপে ভারত  

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তৃতীয় দিনের শেষেই বোঝা গিয়েছিল মার্নাস লাবুশানে ও স্টিভ স্মিথকে তাড়াতাড়ি না ফেরাতে পারলে ভারতের কপালে দুঃখ আছে। সেটাই দেখা গেল চতুর্থ দিন। সেই একই ভাবে ব্যাট করলেন দু’জনে। ৭০-এর ঘরে অবশ্য লাবুশানে আউট হয়েছেন। কিন্তু স্মিথ এখনও খেলছেন। আগের ইনিংসে সেঞ্চুরির পরে এই ইনিংসে হাফসেঞ্চুরি করেছেন তিনি। আর এই দু’জনের ব্যাট ম্যাচে ক্রমেই জাঁকিয়ে বসছে অস্ট্রেলিয়া।

দুই ব্যাটসম্যানকে এভাবে সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অবশ্য খানিক দায়ী ভারতের ফিল্ডিংও। দিনের দ্বিতীয় বলেই লেগ স্লিপে লাবুশানের ক্যাচ ছাড়েন বিহারি। ওই ক্যাচ তিনি তালুবন্দি করতে পারলে ম্যাচের ছবিটা হয়তো বদলেই যেত। কিন্তু জীবনদান পাওয়ার পরে সেটাকে কাজ লাগালেন লাবুশানে। পরপর দুই ইনিংসেই হাফসেঞ্চুরি করলেন তিনি।

দেখে মনে হচ্ছিল এই ইনিংসে হয়তো সেঞ্চুরিও করে ফেলবেন লাবুশানে। কিন্তু নবদীপ সাইনির বলে ক্যাচ ধরে ৭৩ রানের মাথায় তাঁকে প্যাভিলিয়নে পাঠান ঋদ্ধিমান সাহা। ৪ রানের মাথায় ম্যাথু ওয়েডের ক্যাচও ধরেন তিনি। বোলার সেই নবদীপ।

কম ব্যবধানে দু’উইকেট পড়ে যাওয়ার পরে অবশ্য স্মিথের সঙ্গে পার্টনারশিপ গড়েন ক্যামেরন গ্রিন। লাঞ্চের বিরতি পর্যন্ত আর উইকেট পড়েনি। নিজের হাফসেঞ্চুরি করেছেন স্মিথ। ৪ উইকেটে ১৮২ রান অস্ট্রেলিয়ার। স্মিথ ৫৮ ও গ্রিন ২০ করে খেলছেন। অস্ট্রেলিয়ার লিড ২৭৬ রানের।

ভারতকে এখনও এই ম্যাচে নিজেদের সুযোগ দিতে হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব স্মিথকে ফেলতে হবে। শুধু তাই নয় অজি টেলএন্ডারদেরও তাড়াতাড়ি আউট করতে হবে। নইলে লিড ৩৫০ রানের বেশি হয়ে গেলে কিন্তু টেস্ট বাঁচানো খুব কঠিন হয়ে পড়বে রাহানেদের কাছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More