মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, হাসপাতালে ভাগবৎ চন্দ্রশেখর, বার্তা বন্ধু বেদীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: সোনার দলের সেই স্পিনার ভাগবৎ চন্দ্রশেখর মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত সমস্যা নিয়ে বেঙ্গালুরুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। গত শুক্রবার ভর্তি করা হলেও সোমবার তাঁকে জেনারেল বেডে নিয়ে আসা হয়েছে। পরিবারের তরফ থেকে যদিও জানানো হয়েছে চিন্তার কিছু নেই। চিকিৎসকরা তাঁকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রেখেছেন, তাঁর অবস্থা স্থিতিশীলই।

চন্দ্রশেখর বললেই যে নামগুলি পরে পরে চলে আসে, সেগুলি হল, বিষেন সিং বেদী, এরাপল্লী প্রসন্ন, বেঙ্কটরাঘবন। ভারতীয় দলের স্পিন সাম্রাজ্যের চার মূর্তিই বর্তমান। এঁরা প্রত্যেকেই প্রত্যেকের এখনও যোগাযোগ রাখেন। তাই বিষেন সিং বেদী বার্তাও জানিয়েছেন, ‘ভাল হয়ে ওঠো বন্ধু।’

চন্দ্রশেখরের বয়স ৭৫, ভারতীয় ক্রিকেট তাঁকে ‘চন্দ্র’ নামে ডেকে এসেছে। বয়সের কারণে গত কয়েকদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন চন্দ্রশেখর। গত শুক্রবার প্রবল অসুস্থ হয়ে পড়েন। শুধু তাই নয়, তাঁর কথাও জড়িয়ে যায়। তাঁর স্ত্রী সন্ধ্যা সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেছেন, ‘‘বয়সের ভারে গত কয়েকদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। শরীরে ক্লান্তিভাব ছিল। তাছাড়া গত শুক্রবার সন্ধেবেলা ওঁর কথাবার্তা জড়িয়ে যায়। তাই হাসপাতালে ভর্তি করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।’’

চন্দ্রশেখর দীর্ঘদিন ধরেই ঘরবন্দী জীবন কাটাচ্ছেন। তিনি হুইলচেয়ারে করে বাড়িতেও যাতায়াত করে থাকেন। সম্প্রতি তিনি সেটিও পারছিলেন না। বয়সের কারণে তাঁর নানা শারীরিক সমস্যা লেগে রয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, তাঁর হৃদযন্ত্রেও সমস্যা রয়েছে, তাঁর একটি হার্ট ব্লক রয়েছে। তবে চিন্তার কিছু নেই, সব ঠিক থাকলে তিনি বৃহস্পতিবার বাড়ি ফিরে আসবেন জানানো হয়েছে।

১৬ বছরের আন্তর্জাতিক কেরিয়ারে দেশের হয়ে ৫৮টি টেস্ট খেলেছিলেন চন্দ্রশেখর। ঝুলিতে রয়েছে ২৪২ উইকেট। তবে মাত্র ১টি একদিনের ম্যাচ খেলেছেন এই লেগ স্পিনার। ৬০-৭০ দশকে এই লেগস্পিনার বিপক্ষ শিবিরে কাঁপন ধরিয়ে দিয়েছিলেন।

 

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More