জৌলুসহীন শিল্ড, খেলছে না কলকাতার দুই প্রধান, ভিনরাজ্যের শুধু তিনটি দল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আইএসএলের মধ্যেই এবার কলকাতায় হবে আইএফএ শিল্ডের আসর। ৬ই ডিসেম্বর শুরু হয়ে ফাইনাল ১৯ ডিসেম্বর। মোট ১২ দলের টুর্নামেন্ট হবে। তিনটি করে দলকে চারটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে।

তবুও এবার শিল্ড জমবে না, সেরকমই মনে করছে কলকাতার ফুটবলমহল। কেননা যাদের নিয়ে সকলের আকর্ষণ, সেই মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গল এই ঐতিহ্যবাহী টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে না। তার মূলত দুটি কারণ। এক, শিল্ড করা হবে সিনিয়রদের নিয়ে, জুনিয়র ফুটবলারদের নিয়ে করলে দুটি নামী দলই খেলাত। কারণ তারা বেশি মনোযোগ দিচ্ছে আইএসএল-কে।

দ্বিতীয় কারণ, টুর্নামেন্টে কোনও জৈব সুরক্ষা বলয়ের ব্যবস্থা করতে পারেননি আইএফএ সচিব। তিনি বলছেন, আমাদের সব ধরনের ব্যবস্থাই থাকবে, তারপরেও কিসের জন্য সুরক্ষা দরকার? এমন প্রশ্ন সকলের মধ্যেই হাসির উদ্বেগ করেছে।

করোনা পরিস্থিতির মধ্যে টুর্নামেন্ট করা হচ্ছে, অথচ জৈব সুরক্ষা বলয়ের ব্যবস্থা নেই। কিন্তু কয়েকদিন আগে আই লিগের দ্বিতীয় ডিভিশন আই লিগে ‘বায়ো বাবল’ সিস্টেম ব্যবস্থা চালু ছিল। সেই কারণেই ভিন রাজ্যের তিনটি দল, গোকুলাম এফসি, সুভেদা এফসি, ইন্ডিয়ান অ্যারোজের সঙ্গে রয়েছে কলকাতার আরও এক প্রধান মহামেডান স্পোর্টিং।

এছাড়াও কলকাতা লিগে খেলা কালীঘাট এমএস, পিয়ারলেস,  সার্দান সমিতি,  বেহালা বিএস স্পোর্টিং, জর্জ টেলিগ্রাফ, এরিয়ান ক্লাব,  ইউনাইটেড স্পোর্টিং ক্লাব ও খিদিরপুর এসসি এবার অংশ নেবে আইএফএ শিল্ডে। একসময় যে টুর্নামেন্টে খেলে গিয়েছে বিদেশী দল, যে টুর্নামেন্ট জিতে মোহনবাগান প্রথম ১৯১১ সালে ইতিহাস রচনা করেছিল, সেই শিল্ডের এই অবস্থায় মুহ্যমান ফুটবলমহল।

প্রতিটি গ্রুপে একটি করে আই লিগ খেলা দল রয়েছে। ‘এ’ গ্রুপে যেমন মহামেডানের প্রতিপক্ষ খিদিরপুর ও কালীঘাট এমএস। গ্রুপ ‘বি’-এ সুদেভা এসসি, পিয়ারলেস ও এরিয়ান। ‘সি’ গ্রুপে ইন্ডিয়ান অ্যারোজ খেলবে সাদার্ন সমিতি ও জর্জ টেলিগ্রাফের বিরুদ্ধে। আর ডি গ্রুপে গোকুলাম এফসি ছাড়া থাকছে বিএস স্পোর্টিং ও ইউনাইটেড স্পোর্টস।

আইএফএ সচিব নিজেও রেখেছেন তাঁর নিজের দল বেহালা স্পোর্টিং দলকে। চ্যাম্পিয়ন দলকে দেওয়া হবে তিন লক্ষ টাকা, আর রানার্স পাবে দুই লক্ষ। টুর্নামেন্টের সেরা ফুটবলার পাবেন চুনী গোস্বামী নামাঙ্কিত ট্রফি ও সেরা কোচকে দেওয়া হবে প্রয়াত পি কে বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে ট্রফি। এমনকি থাকছে টুর্নামেন্টের নিজস্ব থিম সং। এত করেও টুর্নামেন্ট জমবে কিনা সংশয় রয়েছে। কেননা তখন আইএসএল পুরোদমে চলবে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More